হ্নীলায় ৫০হাজার ই*য়া*বা ও লম্বা ব*ন্দু*কসহ গ্রেফতার-১

: হুমায়ুন রশিদ
প্রকাশ: ৭ মাস আগে

ফরিদুল আলম : হ্নীলায় র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বসত-বাড়িতে লুকানো ৫০হাজার ইয়াবা, লম্বা বন্দু ও বুলেটসহ চিহ্নিত মাদক কারবারী এবং সন্ত্রাসী রবি আলমকে গ্রেফতার করেছে।

সুত্র জানায়,৩অক্টোবর ভোর ৫টারদিকে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর (সিপিসি-২) হোয়াইক্যং ক্যাম্পের চৌকস একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হ্নীলা উলুচামারি এলাকায় একটি দুর্ধষ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী গ্রেফতারের লক্ষ্যে অভিযানে যায়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় আব্দুস শুক্কুর ওরফে লেড়াইয়ার পুত্র, দুর্র্ধষ সন্ত্রাসী, গুলিবর্ষণ করে জনমনে আতংক সৃষ্টিকারী, পাহাড়ী ডাকাত এবং মাদক কারবারী রবিউল আলম ওরফে কাইলা রবিকে গ্রেফতার করে। এসময় আরো ৩জন মাদক কারবারী, সন্ত্রাসী ও ডাকাত পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরে এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫০হাজার ইয়াবা, সিলিংসহ ১টি লম্বা একনলা বন্দুক, ১টি শর্টগানের কালো রংয়ের কার্তুজ, ২টি শর্টগানের খালি খোসা, ২ রাউন্ড গুলি, ১টি এন্ড্রয়েড ফোন এবং ২টি সীম উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত রবি আলম একজন দুর্র্ধষ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী এবং কাইলা রবি নামে খ্যাত। সে অপহরণ, ডাকাতি, চাঁদাবাজি, অস্ত্র ও মাদক ব্যবসাসহ অন্যান্য সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সাথে জড়িত। এরই পাশাপাশি তার আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে অস্ত্র-শস্ত্রের ভয়-ভীতি দেখিয়ে জনমনে আতংক সৃষ্টি করে আসছিল। সে অপহরণ দলের একজন সক্রিয় সদস্য হওয়ায় তার সরাসরি অংশগ্রহণের মাধ্যমে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার লোকজনদের অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হতো দুর্গম পাহাড়ী এলাকায় এবং বারংবার স্থান পরিবর্তন করে অপহৃত ব্যক্তিদের থেকে মোটা অংকের মুক্তিপণ আদায় করত। মুক্তিপণের টাকা আদায় করতে অপহৃত ব্যক্তির উপর চালানো হত পৈশাচিক নির্যাতন। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গ্রেফতার এড়াতে বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে আসছে। তার বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় হত্যা চেষ্টা, মারামারি, অপহরণ, অস্ত্র, মাদক ও সরকারি কাজে বাঁধা দানসহ ৭টি মামলা রয়েছে।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবু সালাম চৌধুরী জানান, উদ্ধারকৃত আলামতসহ ধৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লিখিত এজাহার দাখিলের পর ধৃতকে টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। ###