বায়ার্নকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বরুশিয়া মনশেনগ্লেডবাচ

bayaran.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : প্রতিপক্ষ যে হোক না কেন, গোলবন্যায় ভাসাতে জুড়ি নেই বায়ার্ন মিউনিখের। কিন্তু সেই বাভারিয়ানরাই এবার বুঝল, বড় হারের লজ্জা কাকে বলে।

জার্মান কাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে বরুশিয়া মনশেনগ্লেডবাচ ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্নকে। ৪৩ বছরের মধ্যে এত বড় হার আর দেখেনি জার্মান জায়ান্টরা।

১৯৭৮ সালে বুন্দেসলিগায় ফরচুনা ডুসেলডর্ফের বিপক্ষে ৭-১ গোলে হেরেছিল বায়ার্ন। এবার তাও হারের ব্যবধানটা এক গোল কম।

তার দুই বছর আগে নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হেরেছিল বায়ার্ন। ১৯৭৬ সালে লিগে বাভারিয়ানদের ৭-০ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়েছিল শালকে।

ম্যাচ শুরুর ২১তম মিনিটেই ৩ গোলে এগিয়ে যায় গ্লেডবাচ। তার মধ্যে বায়ার্ন প্রথম গোল হজম করে দ্বিতীয় মিনিটেই। দ্বিতীয়ার্ধে আরও দুই গোল দেয় গ্লেডবাচ। জোড়া গোল করেছেন রামি বেনসেবাইনি ও ব্রিল এম্বোলো। নিজেদের ৬ শটের মধ্যে পাঁচটিতেই জাল খুঁজে নেয় গ্লেডবাচ।

জার্মান কাপের রেকর্ড ২০ বারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্নের এই হার দেখে অবাক হাসান সালিহামিদজিচ। এআরডি’কে অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনার সাবেক এই ডিফেন্ডার বলেন, ‘আমি নিঃসন্দেহে মর্মাহত। আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারিনি।’

চলতি মৌসুমে বায়ার্নের এটি দ্বিতীয় হার। সেই সঙ্গে থামল কোচ হুলিয়ান নাগেলসম্যানের শিষ্যদের টানা ৮৫ ম্যাচে গোলের দৌড়।