কোয়াড নেতাদের গণতন্ত্র স্থিতিশীল রাখার ওপর জোর

koyad.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও জাপানের নেতারা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে গণতন্ত্র স্থিতিশীল রাখার ওপর জোর দিয়েছেন। স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার হোয়াইট হাউসে কোয়াডের চার সদস্য দেশের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন, জাপানের প্রধানমন্ত্রী যোশিহিদে সুগা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত ছিলেন।

এই প্রথমবারের মতো সশরীরে কোয়াডের নেতাদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে চার দেশের নেতারা করোনার টিকা, আঞ্চলিক অবকাঠামো, জলবায়ু পরিবর্তন ও কম্পিউটার প্রযুক্তিতে ব্যবহৃত সেমিকন্ডাক্টর সরবরাহের বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
কোয়াড নেতারা তাদের অর্থনৈতিক ও পরিবেশগত স্থিতিস্থাপকতা বৃদ্ধির জন্য ক্ষুদ্র দ্বীপ রাষ্ট্রগুলো, বিশেষ করে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রতি সমর্থন জানান।

বৈঠকের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, ‘আমরা উদার ধারার গণতান্ত্রিক দেশগুলো স্বাধীনতার পক্ষে। আমরা স্বাধীন ও মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল চাই।’

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা বলেন, ‘এই বৈঠকের মাধ্যমে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের মধ্যে সংহতি শক্তিশালী হবে।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কোয়াডভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ চর্চার ওপর জোর দেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘কোয়াডভুক্ত চার প্রধান গণতান্ত্রিক দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার ইতিহাস রয়েছে। আমরা এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য প্রস্তুত।’

মূলত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে চীনের প্রভাব রুখতে ২০০৭ সালে কোয়াড গঠন করা হয়। তবে দীর্ঘদিন গ্রুপটি প্রায় নিষ্ক্রিয় অবস্থায় ছিলো।