টেকনাফ বাহারছড়ার ছিদ্দিক তার সহযোগী ৪৬,৭৪০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার

Q.jpg

বিশেষ প্রতিবেদক:টেকনাফ বাহারছড়া কচ্ছপিয়া ও উখিয়া বালুখালী এলাকার দুই মাদক কারবারিকে ১কোটি ৪১ লক্ষ টাকা মূল্যের ৪৬,৭৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ২জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম। মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি পিকআপ জব্দ করা হয়েছে।

সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার(৫ আগস্ট) ৪:১৫ ঘটিকায় র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি পিকআপ যোগে বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার হতে চট্টগ্রাম শহরের দিকে আসছে।এসময় চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন শাহ আমানত সেতু সংযোগ সড়ক এলাকার তানিম এন্টারপ্রাইজ নামীয় দোকানের সামনে পাকা রাস্তার উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে। এসময় র‍্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি পিকআপের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‍্যাব সদস্যরা পিকআপটিকে থামানোর সংকেত দিলে পিকআপটি র‍্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামিয়ে চালক ও হেলপার গাড়ি থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে র‍্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে স্থানীয় টেকনাফ বাহারছড়া কচ্ছপিয়া মৃত কবির আহমেদের ছেলে আবু ছিদ্দিক (২৯) ও উখিয়া বালুখালী এলাকার মোঃ জমির আহমেদের ছেলে মোঃ বেলাল উদ্দিন( ২০)কে আটক করা হয়।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানোমতে পিকআপে থাকা প্লাস্ট্রিকের ক্যারেটের মধ্যে ট্রাভেল ব্যাগের ভিতর সুরক্ষিত অবস্থায় ৪৬,৭৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীদের গ্রেফতার করে এবং উক্ত পিকআপটি (চট্ট মেট্রো-ন-১১-৬৬৬৩) জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, তারা দীর্ঘ দিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট পাচার করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা এবং পিকআপের আনুমানিক মূল্য ২০ লক্ষ টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী ও উদ্ধারকৃত আলামত সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।