ঘুমধুমে বীর বাহাদুর : আ’লীগ মানবতার সরকার বলেই মানুষের কল্যানে পাশে থাকে

232277605_406679884210543_8793784465833793103_n.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী : পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন,আওয়ামীলীগ জনগণের দল,মানবতার দল।আওয়ামীলীগ মানবিক সরকার।দেশের ক্রান্তিকালে দুর্গত মানুষের পাশে থাকে বলেই বার-বার আওয়ামীলীগ কে রাষ্ট্র পরিচালনার সুযোগ দিয়েছে জনগণ।

আওয়ামীলীগ দেশ ও জনগণের উন্নয়নে ধারাবাহিকতা রেখে কাজ করে যাচ্ছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু দেশদ্রোহী একটি চক্র বার-বার ষড়যন্ত্র করে আওয়ামীলীগ কে ধ্বংসের পাঁয়তারা করেছে।দেশ বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশ কে এগিয়ে নিয়েছে।প্রাকৃতিক নানা দুর্যোগ মোকাবিলায় আওয়ামীলীগ সরকার সফলতার নজির সৃষ্টি করেছে। বিএনপি-জামায়াত আমলের তলাহীন ঝুড়ির রাষ্ট্রের পরিচিতি মুছে একটি স্বয়ং সম্পূর্ণ রাষ্ট্রে পরিণত করে পরনির্ভরশীলতার বদনাম গুছিয়েছে।

বীর বাহাদুর আরো বলেছেন,বৈশ্বিক মহামারী করোনার ষাতাকলে জনগণ আতংকে দিনাতিপাত করছে।করোনা মোকাবিলায় শেখ হাসিনার সরকার সংক্রমণ রোধে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করেছে।পুরো দেশটি করোনার কবলে শংকিত ছিল।উত্তরণে যা করনীয় তা বাস্তবায়নে সরকার ব্যস্ত।এমনি মুহুর্তেই দেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।মানুষের দুঃখ কষ্ট লাঘবে,ক্ষত মুছে শেখ হাসিনা সরকার মানুষের পাশে দাড়াতে দায়িত্বশীল সকল কে নির্দেশ দিয়েছেন।যাতে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কষ্টের চাপ কাটিয়ে মুখে হাসি ফুটে। তারই ধারাবাহিকতায় আজকে দুর্গত মানুষের কাছে ছুটে এসেছি।

বৃহস্পতিবার ৫ আগষ্ট সকাল ১১ টায় নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শফি উল্লাহ’র সভাপতিত্বে জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভাপতি তসলিম ইকবাল চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ত্রান বিতরণোত্তর জনসমাবেশে উপরোক্ত কথা গুলো বলেছেন বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম, বান্দরবানের নির্বাহী প্রকৌশলী জিল্লুর রহমান,পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ইয়াছির আরাফাত,বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ,মোজাম্মেল হক বাহাদুর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল কুদ্দুস, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা ফেরদৌস, থানা অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন,
বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি মু,আবু তাহের কোম্পানী, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক উপ সম্পাদক রবীন বাহাদুর,বান্দরবানের পৌরসভার প্যানেল মেয়র সৌরব দাশ,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউসার সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক জনী সুশীল, ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর আজিজ প্রমুখ।

এসময় বান্দরবান জেলা যুবলীগের আহবায়ক কেলুমং মার্মা, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মংলা মার্মা,নাইক্ষ্যংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন,ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোঃদেলোয়ার হোসেন,নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মু,নুরুল আবছার, দোছড়ি ইউপির চেয়ারম্যান হাবিব উল্লাহ,বাইশারী ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি, সোনাইছড়ি ইউপির চেয়ারম্যান এ্যানিং মং মার্মা,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইমরান,নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাব সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগ দপ্তর সম্পাদক শামীম ইকবাল চৌধুরী, অধ্যাপিকা রওশন আক্তার,ঘুমধুম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব খালেদ সরওয়ার হারেজ,সাধারণ উপেন্দ্র লাল কারবারি,সহসভাপতি ডাঃ শাহজাহান, ঘুমধুমস্থ রেডিয়েন্ট গার্ডেনের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মশহুর উর রহমান লিটন,উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী হোছাইন,ঘুমধুম ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছৈয়দুল বশর,নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বদর উলাহ বিন্দু,সাধারণ সম্পাদক মু, রেজাউল করিম, ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবদূর রশিদ,ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানাসহ আওয়ামীলীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহ দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জনসমাবেশ শেষে উত্তর ঘুমধুমে গত ২৭ জুলাই মাসে টানা বর্ষণে পানিতে ভেসে মারা যাওয়া আশীষ বড়ুয়ার পরিবারে জেলা প্রশাসন ও জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পৃথক ভাবে ২০ হাজার করে ৪০ হাজার টাকা নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন বীর বাহাদুর।এসময় রেডিয়েন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর পক্ষ থেকে ৭৫ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারে গ্যাসসিলিন্ডার ও চুল্লি ও বস্ত্র বিতরণ করা হয়। এছাড়াও কয়েক শতাধিক পরিবারে সরকারীভাবে চাল ডালসহ খাদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।