বাহারছড়ায় শত্রুতার জের ধরে দু’শতাধিক সুপারি গাছের কচি সুপারিসহ মুকুল কেটে ধ্বংস

ds.jpg

আজিজ উল্লাহ : টেকনাফের বাহারছড়া চৌকিদার পাড়া পাহাড়ি পাদদেশে অবস্থিত জুম্মা পাড়া এলাকায় শত্রুতার জের ধরে রাতের আধাঁরে দুই শতাধিক সুপারি গাছের কচি কচি সুপারি গাছের মুকুল কেটে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার(৫ ম) রাতে চৌকিদার পাড়া স্থানীয় মৃত গোলাম হোসাইনের ছেলে শামসুল আলমের(৪৫) বাগানের সুপারি গাছের কচি কচি পিয়েল কেটে সাবাড় করে দেয়া হয়। এতে প্রায় ৭০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়।

এই ঘটনায় স্থানীয় বিভিন্ন পেশার সচেতন মানুষ জানিয়েছেন এসব কাজ পশুরাও করবেনা।মানুষে মানুষে বিভিন্ন বিবাদ লেনদেন থাকতে পারে তার জন্য প্রকৃতির প্রতি অত্যাচার করা কোনভাবেই উচিত নয়। এহেন ন্যাক্কারজনক কাজের নিন্দাসহ দোষীদের খোঁজে বের করে শাস্তির দাবি করেন তারা।ভবিষ্যতে এমন জগন্য যাতে সংঘটিত না তার জন্য সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

ক্ষতিগ্রস্থ অস্থায়ী সুপারি বাগানের মালিক শামসুল আলম বলেন,’এই বাগানের প্রকৃত মালিক কাদের পাড়া এখলাছ মিয়া তার থেকে অগ্রিম টাকা দিয়ে এক বছরের জন্য সুপারি গাছের আগা ক্রয় করি কিন্তু পাশ্ববর্তী ইউসুফ নামের একজন লোক গত বছর এই বাগানের আগা ক্রয় করছিল এবছর আমি নিয়েছি তার জন্য গত পরশু তার সঙ্গে বাড়াবাড়ি হয় পরের দিন এমন ঘটনা ঘটে। তিনি আরো অভিযোগ করেন এই ঘটনার জের ধরে তারাই ইন্ধনে শত্রুতায় এসব কচি কচি সুপারি কেটেছে বলে অভিযোগ করেন’।

এদিকে বাহারছড়া ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাফেজ আহমদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,কে বা কারা এসব কাজ করছে তা খোঁজে বের করে অপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করা হবে বলে জানান তিনি।