নাইক্ষ্যংছড়িতে ছয় রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ একজন আটক

naik.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী : নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম থেকে ৬ রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ জহিরুল মামুন (২৯) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার (২ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী উখিয়া – টেকনাফ সড়কের সংলগ্ন টিভি টাওয়ারের পার্শ্বের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার
আওতাধীন ইয়াহিয়া গার্ডেন এলাকায় এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জহিরুল মামুন (২৯) আটক করা হয়।
থানা সূত্রে জানান, উপজেলার সীমান্ত ঘুমধুমের পার্শ্ববর্তী টেকনাফ-উখিয়া সড়কের টিভি টাওয়ার সংলগ্ন নাইক্ষ্যংছড়ি থানার আওতাধীন ইয়াহিয়া গার্ডেন এলাকার প্রবেশ মূখে পাকা রাস্তার উপর চেক পোষ্টে ডিউটি অবস্থায় টহল অবস্থায় সংবাদের ভিত্তিতে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা কর্মকর্তার দিক নির্দেশনায় এবং ঘুমঘুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের দায়িত্বরত পুলিশ পরির্দশক মো,দেলোয়ার হোসেনের সার্বিক তত্বাবধায়নে এবং এসআই মুখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের আনজুমান পাড়ার বাসীন্দা ছৈয়দ নুরের ছেলে জহিরুল মামুন(২৯) কে ৬ (ছয়) রাউন্ড তাজা গুলিসহ আটক করতে সক্ষম হয়।
৩ মে সোমবার দুপুরে
উদ্ধারকৃত বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো, আলমগীর হোসন জানান, গোপন সংবাদে তাঁর নির্দেশনায় ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের টহল দল অভিযান চালিয়ে ঘুমধুম ইউনিয়নের ইয়াহিয়া গার্ডেন এলাকা থেকে জহিরুল মামুন নামে এক ব্যাক্তির থেকে ৬ রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধারসহ আটক করা হয়।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরো জানান, আটককৃত জহিরুল মামুন কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের আনজুমান পাড়ার পূর্ব ফারিরবিল এলাকার ছৈয়দ নুরের পুত্র। অবৈধ অস্ত্রের গুলি রাখার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় অস্ত্র মামলায় রুজু করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।