রানের পাহাড় গড়ে শ্রীলঙ্কার লিড ঘোষণা

c.jpg

Sri Lanka's Niroshan Dickwella (R) plays a shot as Bangladesh's wicketkeeper Liton Das (L) and Saif Hassan watch during the fourth day of the second and final Test cricket match between Sri Lanka and Bangladesh at the Pallekele International Cricket Stadium in Kandy on May 2, 2021. (Photo by LAKRUWAN WANNIARACHCHI / AFP) (Photo by LAKRUWAN WANNIARACHCHI/AFP via Getty Images)

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ চামিন্দা ভাস বলেছিলেন, চারশর বেশি রানের লক্ষ্য দিতে চান বাংলাদেশকে। সে লক্ষ্যে সফল হয়েছে তার দল। চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনেই ৪০০ ছাড়িয়েছিল স্বাগতিকদের ইনিংসের গতি। দ্বিতীয় সেশনে ত্রিশ মিনিটের মতো ব্যাট করে ইনিংস ঘোষণা করে লঙ্কানরা। দুই ইনিংস মিলিয়ে শ্রীলঙ্কার লিড ৪৩৬। বিশাল এই রানের পাহাড় মোকাবিলায় কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে বাংলাদেশের। কেননা, এর আগে কখনো এত বড় লক্ষ্য তাড়া করে জিততে পারেনি টাইগাররা।

আজ রোববার ক্যান্ডির পাল্লেকেলেতে সিরিজের শেষ টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে এসে সুবিধা করতে পারেননি আগের দিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান অ্যাঞ্জেলা ম্যাথুজ। স্পিন বান্ধব হয়ে উইকেটে প্রথম স্পেলে স্পিনারদের দিয়ে বোলিং শুরু করেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক। এতে সাফল্যের সঙ্গে ম্যাথুজকে সাজঘরে ফেরান তাইজুল।

দ্রুত রান তুলতে থাকে অপর প্রান্তে থাকা আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান দিমুথ করুণারত্নে। তার ব্যাটে দারুণ পুঁজি পায় স্বাগতিকরা। তবে বিধ্বংসী হয়ে উঠা এই ব্যাসম্যানকে দলীয় ১১২ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরান সাইফ হাসান। লঙ্কান অধিনায়ক কোনো টেস্ট সিরিজে ৪০০ রানের রেকর্ড গড়ার খানিক পরেই তাকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম উইকেটের স্বাদ পান এই স্পিনার।

করুণারত্নে বিদায় নিলেও আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে রানের চাকা এগিয়ে নিতে থাকেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। ওয়ানডে মেজাজে দ্রুততার সঙ্গে ৪১ রান তুলতেই এই ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান মেহেদি হাসান মিরাজ। ৩৭তম ওভারের শেষ বলে পাথুম নিশাঙ্কাকেও ফেরান তাইজুল। মিড অনে থাকা শরিফুলের তালুবন্দি হওয়ার আগে ২৪ রান যোগ করেন তিনি।

দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে উইকেটে আঘাত হানেন তাসকিন আহমেদ। নিরোশান ডিকভেলাকে ডিপ স্কোয়ার লেগে তাইজুলে তালুবন্দি করে ফেরান এই পেসার। ফেরার আগে ২৪ রান যোগ করেন ডিকভেলা। পরের ওভারে তাইজুলের চতুর্থ শিকার হন আট রান করা রামেশ মেন্ডিস। পরের ওভারে এসে সুরঙ্গা লাকমলকে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান তাইজুল। এটি তার এই ইনিংসের পঞ্চম শিকার। এতেই ৯ উইকেটে ১৯৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংসের লিড ঘোষণা করে লঙ্কানরা।