মিয়ানমারের কয়েক হাজার বিদ্রোহীর থাইল্যান্ডে পালানোর প্রস্তুতি

myanmar.jpg

Ethnic minority Karen troops are seen after setting fire to a building inside a Myanmar army outpost near the Thai border, which is seen from the Thai side on the Thanlwin, also known as Salween, riverbank in Mae Hong Son province, Thailand, April 28, 2021. REUTERS/Athit Perawongmetha

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : ক্ষমতা দখল করা সেনাবাহিনীর সঙ্গে পেরে না উঠে থাইল্যান্ডে পালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে মিয়ানমারের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার ক্যারেন বিদ্রোহী।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, থাই সীমান্তের কাছাকাছি সেনাবাহিনীর সঙ্গে ক্যারেন বিদ্রোহীরা কয়েক সপ্তাহ ধরে সংঘর্ষে লিপ্ত।

চু ওয়াহ নামের একজন স্থানীয় বাসিন্দা রয়টার্সকে বলেন, ‘মানুষ বলছে বর্মিরা এসে আমাদের গুলি করবে। তাই আমি নদী পার হয়ে থাইল্যান্ডে চলে এসেছি।’

চলতি সপ্তাহে পরিবারসহ থাইল্যান্ডে পালিয়ে যাওয়া ওই ব্যক্তি বলেন, ‘নদী আর জঙ্গল পার হয়ে আমাকে এখানে আসতে হয়েছে।’

ক্যারেন পিস সাপোর্ট নেটওয়ার্ক বলছে, সামনের কয়েক সপ্তাহে ৮ হাজারের মতো মানুষ থাইল্যান্ডে পালিয়ে যেতে পারেন।

থাই সরকার বলছে, মিয়ানমারে সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ২ হাজার ২৬৭ জন দেশটিতে প্রবেশ করেছেন।

ক্যারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি হলো কেএনইউ-র সামরিক বাহিনী। ১৯৪৯ সাল থেকে তারা মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। তারা ক্যারেন জাতিগত সংখ্যালঘুদের জন্য স্বাধীন রাষ্ট্র চায়।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে সেনা শাসন চলছে। সু চি-সহ বহু রাজনৈতিক নেতাকে আটক করা হয়েছে। সেনা শাসনের বিরুদ্ধে প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভ হচ্ছে। সেনা ও পুলিশ তা কঠোরভাবে দমন করছে। প্রায় সাড়ে সাতশ বিক্ষোভকারী মারা গেছেন।