চকরিয়ায় পেটের ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে রোহিঙ্গা যুবক ; অপারেশনে মিলল ১৯৫০ পিস ইয়াবা!

Chakaria-Picture-17-04-2021.jpg

এম.জিয়াবুল হক : শুক্রবার দুপুরে প্রচন্ড পেট ব্যাথা নিয়ে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাটস্থ মেমোরিয়াল খিস্ট্রান হাসপাতালে ভর্তি হন উখিয়া শরনার্থী শিবিরের বাসিন্দা রোহিঙ্গা যুবক মো.জাকির হোসেন (২২)।

হাসপাতালের ১৪০৭ নাম্বার কেবিনে রোগির পেট ব্যাথা লক্ষণ দেখা দেয়ায় তার অপারেশনের ব্যবস্থা করেন চিকিৎসক দল। এসময় চিকিৎসক দল অপারেশনের মাধ্যমে (পেট কাটা হয়)পর তার পেট থেকে কালো কসটেপ মোড়ানো ৩৯টি ছোট ছোট প্যাকেট বের করে আনে।

বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়ায় চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে হাসপাতালের পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা যোসেফ অমুল্য রায় খবর দেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যোবায়েরকে। এরপরে চকরিয়া থানার এসআই মো.কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হাসপাতালে যায়। এসময় প্যাকেটগুলো থেকে এক একটি করে ১৯’শ ৫০ পিস ইয়াবা বড়ি বের করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকা।

অপারেশনের বদৌলতে শুক্রবার বিকেলে ইয়াবা উদ্ধারের এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। পেট কেটে ইয়াবা উদ্ধার করা যুবক কক্সবাজারের উখিয়াস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প -০২ এর ব্লক-০১ এর মো.ইলিয়াসের ছেলে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের বলেন, শুক্রবার দুপুরে জাকির হোসেন নামের এক রোহিঙ্গা যুবকের পেট অপারেশন করে কালো কসটেপ মোড়ানো বেশ কিছু প্যাকেট বের করা হয়েছে বলে খবর দেয় মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিষ্টান হাসপাতালের আবাসিক সার্জন ডা.স্টিফেন কেলী।

পরে থানার এসআই মো.কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। এসময় পেট কেটে বের করা ৩৯টি প্যাকেটের ভিতর থেকে প্রতি প্যাকেটে ৫০ পিস করে মোট ১৯’শ ৫০ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ী রোহিঙ্গা যুবক জাকির হোসেনকে পুলিশি পাহারায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।##