শেষ হলো মুম্বই মিশন

t-2.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : জাতির পিতা বন্ধবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকের কাজ হচ্ছে ভারতের মুম্বইতে। এ ছবিতে অভিনয়ের জন্য বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার মুম্বই টু ঢাকা এবং ঢাকা টু মুম্বই যাতায়াত করতে হয়েছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশাকে। বায়োপিকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার বড় বেলার চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। নতুন খবর হলো, সম্প্রতি তার চরিত্রের মুম্বই অংশের দৃশ্যধারণ শেষ হয়েছে। তিশা জানান, প্রায় দুই মাস ধরে মুম্বইতে ‘বঙ্গবন্ধু’র শুটিং করছি। এবার ঢাকা যাওয়ার পালা। একটু খারাপ লাগছে। কারণ এতদিন যাদের সঙ্গে কাজ করেছি, যারা আমার পাশে ছিল তারা পরিবারের মতো হয়ে গিয়েছিল।
তাদের ছেড়ে চলে যাবো। খারাপ লাগছে। মিস করবো তাদেরকে। কিন্তু একইসঙ্গে আমি অনেক আনন্দিত এজন্য যে ঢাকায় ফিরছি। আমি আমার পরিবার, বন্ধু ও ভক্তদের কাছে যাচ্ছি। এ ছাড়া বায়োপিকের শুটিংয়ের আগে দুটি সিনেমার কাজ সম্পন্ন করেছেন তিশা। একটি ‘রক্তজবা’ অন্যটি ‘ভালোবাসা প্রীতিলতা’। দুইটি সিনেমাই ভিন্ন ঘরানার। নিয়ামুল মুক্তার পরিচালনায় ‘রক্তজবা’ সিনেমাটি প্রযোজনা করছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। এর শুটিং হয়েছে জানুয়ারিতে। থ্রিলার ঘরানার এই সিনেমার কাহিনী ও চিত্রনাট্য লিখেছেন মুহাম্মাদ তাসনীমুল হাসান। আর ‘ভালোবাসা প্রীতিলতা’ সিনেমায় বৃটিশবিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের বিপ্লবী নারী ও প্রথম নারী শহীদ প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ অভিনেত্রী। দুটি সিনেমা নিয়েই বেশ আশাবাদী তিশা। এদিকে, সম্প্রতি ২৬শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসে মুক্তিযুদ্ধনির্ভর গল্পের একটি ওয়েব ফিল্মে বীরাঙ্গনা চরিত্রে দেখা গেছে তিশাকে। ওয়েব ফিল্মটির নাম ‘নৈবেদ্য’। ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফরম বঙ্গতে এটি প্রকাশ হয়েছে। এটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন শাব্দিক শাহীন ও সিহানুর রহমান আসিফ। তিশা জানান, বায়োপিকের কারণে নাটক, সিনেমায় শুটিং করেননি দীর্ঘদিন। এখন থেকে আবারো নিয়মিতভাবে কাজ শুরু করবেন।