মিয়ানমারের সেনাবাহিনী অন্তত ৭০ জনকে হত্যা করেছে: জাতিসংঘ

m-5.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : মিয়ানমারে অভ্যত্থানের পর থেকে ৭০ জন মানুষকে হত্যা করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। আর এই ঘটনার জের ধরে সেনাসদস্যদের প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি থমাস অ্যান্ড্রুস।

থমাস অ্যান্ড্রুস বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে বলেছেন “মিয়ানমার দেশটি একটি হত্যাকারী, অবৈধ শাসনের দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে যারা মারা গেছেন তাদের অর্ধেকের বেশি বয়স ২৫ বছরের কম। অভ্যুত্থানের পর থেকে দুই হাজারের বেশি মানুষকে আটকে রাখা হয়েছে।”

তিনি বলেন, ‘স্পষ্ট ভিডিও প্রমাণ রয়েছে যে নিরাপত্তা বাহিনী নিষ্ঠুরভাবে বিক্ষোভকারী, চিকিৎসাকর্মী ও পথচারীদের পেটাচ্ছে। সেনাবাহিনী ও পুলিশ আবাসিক এলাকায় যেয়ে, সম্পদ ধ্বংস করছে, দোকান লুট করছে, নির্বিচারে বিক্ষোভাকারী ও পথচারীদের আটক করছে এবং মানুষজনের ঘরবাড়িতে নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছে।’

বক্তব্য প্রকাশের কয়েক ঘন্টা পরেই মিয়ানমার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। একটি ভিডিও বার্তায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চ্যান আয়ে বলছেন, কর্তৃপক্ষ সহিংস বিক্ষোভ মোকাবেলায় চূড়ান্ত সংযমের পরিচয় দিয়েছেন। এছাড়া লিখিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে মিয়ানমার চূড়ান্ত চ্যালেঞ্জের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি গণতান্ত্রিক সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সামরিক বাহিনী। এর পরপরই পথে নেমে আসে মানুষ, শুরু হয় বিক্ষোভ। বৃহস্পতিবার আরও ৭ জন বিক্ষোভকারীকে গুলি করে হত্যা করেছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী।

সূত্র: আল জাজিরা