চকরিয়ায় নজিরবিহীন জালিয়াতি ;অন্যের জমি নিজের দেখিয়ে ইসলামী ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণ

d.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : চকরিয়া পৌরসভা ২নং ওয়ার্ডের হালকাকারা সওদাগরপাড়ার কাকারা মৌজার মৃত আবদুর রশিদ গংয়ের বসতভিটা দখল দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার চেষ্ঠা করছেন একই এলাকার মৃত ইদ্রিচ আহমদ সওদাগরের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম গং। জাহাঙ্গীর আলম গং চট্টগ্রামের ওআর নিজাম রোড ইসলামী ব্যাংক শাখা থেকে ব্যাংক ঋণ নেয়ার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানান জমির মালিক মৃত জাকের আহমদের পুত্র জালাল উদ্দিন। ইতোমধ্যে ব্যাংকের কয়েকজন কর্মকর্তা বসতভিটা এলাকা পরিদর্শনও করেছেন।

জালাল উদ্দিন জানান, পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের হালকাকারা সওদাগরপাড়ায় কাকারা মৌজায় আমার দাদা মৃত আবদুর রশিদ গংয়ের নামে আরএস নং ১৫৭৪ খতিয়ান বেশকিছু জমি রয়েছে। কিন্তু বিএস খতিয়ান নং ৩৯০, ৩৯১ খতিয়ানে ইদ্রিচ আহমদ সওদাগর গংয়ের নামে ভ‚লবশত রেকর্ড হয়। পরবর্তীতে ওই খতিয়ানের বিরুদ্ধে কক্সবাজার যুগ্ম জেলা জজ আদালতে বিএস রেকর্ড সংশোধনী মামলা করা হয়। যার মামলা নং ১৬৪/২০১৬। মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।
তিনি আরও বলেন, আবদুর রশিদ গং এবং ইদ্রিচ আহমদ সওদাগর গংয়ের মধ্যে ১১-১১-১৯৪৯ইং তারিখে সম্পাদিত এবং ২৯-১১-১৯৪৯ রেজি: ১৪৯৮ নং একটি রেজিষ্ট্রাট বন্টননামা রয়েছে। সেখানে আরএস ১৫৭৪ খতিয়ানে ইদ্রিচ গংয়ের কোন জমি নেই। এরপর থেকে আমাদের ওয়ারিশগণ ভোগ দখলে রেখে বসবাস করে আসছি। ইদ্রিচ গংয়ের নামে ভ‚লবশত রেকর্ড হওয়া অন্য জমির পৃথক ১৭৮১ নং খতিয়ান করে প্রতারণার মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার তৎপরতা চালাচ্ছেন।
জালাল উদ্দিন আরও বলেন, মামলার বাদী আমার বড় ভাই হাজী সাহাব উদ্দিন। তিনি মারা যাওয়ার পর মামলাটি আমি পরিচালনা করে আসছি। ইদ্রিচ আহমদ গংয়ের পুত্রগণ বেশ কয়েকবার বসতভিটা দখলের চেষ্ঠাও করেছেন। দখল নিতে না পেরে নানাভাবে হুমকি ও হয়ারানী করে যাচ্ছে। জাহাঙ্গীর আলম গং চট্টগ্রামের ওআর নিজাম রোড ইসলামী ব্যাংক শাখায় ভূয়া কাগজপত্র দেখিয়ে ঋণ নেওয়ার চেষ্ঠা করছেন। যা ব্যাংকের সুনাম ক্ষুন্ন হবে। ##