৪র্থ ধাপে ৩৯ বাসে ২ হাজার ১৪ জন রোহিঙ্গা ভাসানচরের পথে

Snapshot_9.png

কক্সবাজার প্রতিনিধি :
৪র্থ ধাপের প্রথম দিনে প্রায় ২ হাজার রোহিঙ্গা ৩৯টি বাসে ভাসানচরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছে। রবিবার দুপুরে দুই ধাপে তারা উখিয়া ডিগ্রী কলেজের অস্থায়ী ট্রানজিট ক্যাম্প থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছে। সাথে রয়েছে ১১ টি কাভার্ড ভ্যানে তাদের মালামাল। দুপুর সাড়ে ১২টায় ২২টি বাসে ১১৫২ জন ও আড়াইটায় আরো ১৭টি বাস যোগে ৮৬২ জন রোহিঙ্গা যাত্রা করে। আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য সাথে রয়েছে। চট্টগ্রামে পৌঁছার পর নৌবাহিনীর তত্বাবধানে আগামীকাল সোমবার তাদেরকে জাহাজে করে ভাসানচরে নেয়া হবে। নৌবাহিনীর বিএফ শাহীন কলেজ মাঠে তাদেরকে রাখা হবে বলে জানা গেছে।
এর আগে শনিবার রাত থেকে উখিয়া টেকনাফের বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে ভাসানচরে যেতে ইচ্ছুক রোহিঙ্গাদের উখিয়া ডিগ্রী কলেজের অস্থায়ী ক্যাম্পে নিয়ে আসা হয়। সেখানে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার পর তাদেরকে ভাসানচরের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়।
অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন শামসুদ্দৌজা নয়ন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আগামীকাল সোমবার উখিয়া থেকে আরো হাজার দেড়েক রোহিঙ্গা ভাসানচরে যাবে। যারা স্বেচ্ছায় ভাসানচরে যেতে চাচ্ছে শুধুমাত্র তাদেরকেই সেখানে নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।
গত ৪ ডিসেম্বর প্রথম ধাপে ১ হাজার ৬শ ৪২ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নেয়া হয়। ডিসেম্বর রোহিঙ্গাদের ভাসানচর যাত্রা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ৬ হাজারের বেশী রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নেয়া হয়েছে।
উখিয়া টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোতে চাপ কমাতে সরকার রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের উদ্যোগ গ্রহন করে। সেখানে তাদের জন্য তৈরী করা হয় আধুনিক ও উন্নত মানের ঘর।
এদিকে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে যাত্রা নিরাপদ করতে ঘুমধুম ট্রানজিট ক্যাম্প থেকে উখিয়া ডিগ্রী কলেজ ক্যাম্পাস পর্যন্ত এলাকাজুড়ে ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছে আইন-শৃংখলা বাহিনী।