শহরে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ccc-scaled.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : কক্সবাজারে “জেন্ডার রেসপনসিভ জার্নালিজম ফর রিপোর্টিং অন জেন্ডার বেস ভায়োলেন্স” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউএন উইমেনের উদ্যোগে বুধবার কক্সবাজারে একটি হোটেলের হলরুমে নারী ও শিশু মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, স্থানীয় এনজিও’র প্রতিনিধি, স্থানীয় এনজিও (জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থা, আরডাব্লিউ ওয়েলফেয়ার সোসাইটি, প্রান্তিক, আইন ও সালিশ কেন্দ্র, লাইট হাউস, বন্ধু ওয়েলফেয়ার সোসাইটি), ইউএন উইমেন এবং শহরের বিশিষ্টি সাংবাদিক বৃন্দের উপস্থিতিতে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এই মতবিনিময় সভার মুল উদ্দেশ্য ছিলো নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে ১৬ দিনব্যাপী ক্যাম্পেইনের সাথে স্থানীয় সাংবাদিকদের সম্পৃক্ত করা এবং কিভাবে আরো দ্বায়িত্বশীলতার সাথে এবিষয় নিয়ে কাজ করা যেতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা করা। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ তাদের মতামত ব্যাক্ত করেন। নারী প্রতি সংহিসতা প্রতিরোধে এবং সংবাদপত্রের ভুমিকা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

সভার শুরুতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইউএন উইমেন সাব অফিস কক্সবাজারের প্রধান ফ্লোরা মেকোলা বলেন, “নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সাংবাদিকদের ভুমিকার প্রশংসা করেন। সাংবাদিকদের বিশ্লেষনধর্মী সংবাদ এবং দায়িত্বশীলতার সাথে সংবাদ পরিশেনের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। একই সঙ্গে তিনি নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে সকলের একসাথে কাজ করে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।”

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আঞ্চলিক সমন্বয়ক আনিতা সাহা বলেন, “নারীর প্রতি সহিংসতা শুধু কোন একটি এলাকায় সীমাবদ্ধ না এটি বিশ্বব্যাপী বিদ্যমান। তবে এটি রোধে গণমাধ্যম বড় ভুমিকা রাখতে পারে। একই সঙ্গে সাংবাদিকদের ভুল কোন শব্দ ব্যবহারের কারণে যেনো নারীরা ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখার তাগিদ দেন। একই সাথে তিনি সকল সাংবাদিক, মানবতাবাদী সংগঠন, এনজিও কর্মী এবং সরকারের সাথে একযোগে নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে কাজ করার আহ্বান জানান।”

কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক আবু তাহের চৌধুরী বলেন, স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে সকলের সাথে কাজ করতে আগ্রহী এবং সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে সবাইকে নারী অধিকার এবং নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা রোধে একসাথে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, বন্ধু সোসাইটির কর্মকর্তা নাজমুল হক, ফ্রি রোহিঙ্গা কোয়ালিশন কো-অর্ডিনেটর রাজিয়া সুলতানা, জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থা নির্বাহী পরিচালক শিউলী শর্মাসহ অন্যান্যরা।

সভায় নারীর প্রতি সহিংসতা রোধের জন্য আইন ছাড়াও আমাদের প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন। এই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তনই নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ করতে পারবে। যার মাধ্যমে নারী পাবে সহিংসতার প্রতিকার। গড়ে উঠবে সহিংসতামুক্ত একটি সুন্দর সমাজ। তাই নারীদের প্রতি আমাদের এই দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে পরিবার ও সমাজ তথা আমাদের সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।