(ফলোআপ) ; হ্নীলায় বসত-বাড়িতে ভাংচুর ও চাঁদাদাবীর ঘটনায় ১০জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

Teknaf-Pic-A-12-08-20-scaled.jpg

বার্তা পরিবেশক : হ্নীলা আলী আকবর পাড়ায় বসত-বাড়িতে ভাংচুর এবং চাঁদা দাবীর ঘটনায় কক্সবাজার জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে অভিযুক্ত ১০জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

১৩ আগষ্ট সকালে কক্সবাজার জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত-৩ এ টেকনাফের হ্নীলা আলী আকবর পাড়ার হাজী ইসলাম মিয়ার পুত্র হাজী আব্দুল মোনাফ প্রকাশ আব্দুল মন্নান (৫০) কর্তৃক দায়েরকৃত সি/আর মামলার তথ্য সুত্রে জানা যায়, গত ১১ আগষ্ট দুপুর ২টারদিকে স্থানীয় সৈয়দ আহমদের পুত্র রাসেল (২৫), বাঁচা মিয়ার পুত্র নুরুল আমিন (২৪), নুরুল ইসলাম (২৬), ছৈয়দ আহমদের পুত্র ফয়সাল (২৩), আব্দু শুক্কুরের পুত্র হারুনুর রশিদ (২৩), মোঃ হোছন প্রকাশ ভূট্টোর পুত্র মোঃ রশিদ (২২), মৃত কালু মিয়ার পুত্র ছৈয়দ আহমদ (৪৮), আব্দু শুক্কুর (৫২), বাঁচা মিয়া (৫৫), মোঃ হোছন প্রকাশ ভূট্টোসহ একটি গ্রæপ দেশের প্রচলিত আইন অমান্য করে দিয়ারা খতিয়ান নং-৪০০৫, দিয়ারা দাগ নং-৩৫২৩, ৩৭৭৬দাগের ৪০শতক জমিতে বসবাসরত বাড়িতে গিয়ে লোকজনকে মারধর, ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। উক্ত চাঁদা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে রাসেল, নুরুল আমিন, নুরুল ইসলাম ও ফয়সাল মিলে হাতুড়ি, লোহার রড দিয়ে মামলার বাদী ও তার স্ত্রীকে আঘাত করে। এতে ক্ষান্ত না হয়ে হামলাকারীরা সর্ঙ্গীয় দলবল নিয়ে এসে বসত-বাড়ির চারদিকের দেওয়াল ভাংচুর করে ৩লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে। পরবর্তীতে হামলায় আহতরা সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়। যা ফৌজদারী অপরাধ বলে বিজ্ঞ আদালত আমলে নেয়।

বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে তদন্ত রিপোর্ট প্রদানের জন্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দায়িত্বশীল একটি বাহিনীকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।
এদিকে মামলার বাদী দাবী করেন, এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অবৈধ অস্ত্রধারী, ভূমি দস্যু চক্রের অব্যাহত হুমকিতে বাদী এখন নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। সে এসব অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য জোর দাবী জানিয়েছেন। ###