পথভুলে লোকালয়ে বিলুপ্ত মায়া হরিণ শাবক ; ঠাঁই হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে

Chakaria-Pic-15-07-2020.jpg

এম.জিয়াবুল হক : লামা বনবিভাগের ডুলছড়ি রেঞ্জের বনবিটের গহীণ অরণ্যে ছিল বসবাস। মায়ের সঙ্গে ঘুরতে ঘুরতে পথভুলে বনাঞ্চলের পাশে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে বিলুপ্ত প্রজাতির একটি মায়া হরিণ শাবক। খবর পেয়ে বান্দরবানের লামা উপজেলার আমতলী পাড়া থেকে ডলুছড়ি বিটের কর্মকর্তারা গিয়ে হরিণ শাবকটি উদ্ধার করে। পরে ওই শাবকটি হস্তান্তর করা হয়েছে কক্সবাজারের চকরিয়াস্থ ডুলাহাজারা সাফারি পার্কে। বর্তমানে শাবকটি সাফারি পার্কের ভেটেরেনারি হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।
ডুলাহাজারা সাফারি পার্কের বিটকর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, উদ্ধার হওয়া হরিণের শাবকটি বিলুপ্ত প্রজাতির মায়া হরিণ। এ ধরনের হরিণ সাধারণত পাহাড়ি এলাকায় দেখা যায়। বর্তমানে এ প্রজাতির হরিণ বিলুপ্ত প্রায়। মাঝে মধ্যে পথভুলে গভীর জঙ্গল থেকে লোকালয়ে চলে আসে। শাবকটি বয়স আনুমানিক ১৫দিন। মাকে হারিয়ে হরিণের বাচ্চাটি একটু অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাই মায়া হরিণের বাচ্চাকে বর্তমানে পার্কের ভেটেরেনারি হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।
তিনি বলেন, একজন সদ্য শিশু সন্তানের মা না থাকলে যে রকম অবস্থা, এই হরিণ শাবকটির অবস্থাও সেরকম। শাবকটি এখনো যেহেতু দুগ্ধ শিশু বাচ্চা, তাই মায়ের দুধের বিকল্প হিসেবে তাকে লেকটোজেন-১ খাওয়ানো হচ্ছে। প্রতিঘন্টা পর পর তাকে লেকটোজেন-১ দেয়া হচ্ছে। রাতে দূধ খাওয়ানোর জন্য একজন স্টাফকে নাইট শিফটে ডিউটির জন্য নিয়োজিত করা হয়েছে। যেহেতু বাচ্চাটির মা নেই তাই তাকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে। #