নিরব-প্রিয়াঙ্কা জুটির অভিষেক

www.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : ধর্ষণের বিচারের দাবিতে প্রতিবাদমুখর একদল মানুষ। হাতে হাত রেখে রাস্তায় তারা। জেলখানায় বন্দি নিরব। ফাঁসির জন্য তাকে জেলখানায় গোসল করানো হচ্ছে, অন্যদিকে চলছে প্রিয়াঙ্কার বিয়ের প্রস্তুতি। ইউটিউবে সাড়ে তিন মিনিটের এ রকম একটি ট্রেলার অনেকেই দেখেছেন। সেখানে এভাবেই হাজির হয়েছেন এপার বাংলার জনপ্রিয় নায়ক নিরব ও ওপার বাংলার মেধাবী অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা সরকার। অপেক্ষার পালা শেষ। আজ রফিক শিকদার পরিচালিত ‘হৃদয়জুড়ে’ সিনেমাটি মুক্তির মাধ্যমে এ জুটির অভিষেক হবে।

প্রিয়াঙ্কা সরকার সৃজিত মুখার্জি, অঞ্জন দত্ত, অর্ক সিনহাসহ অনেক নির্মাতার ছবিতে অভিনয় দিয়ে দর্শকদের মনোযোগ কেড়েছেন। ‘হৃদয়জুড়ে’ দিয়ে বাংলাদেশে ছবিতে নাম লেখান তিনি। মডেল-অভিনেতা নিরব ভিন্ন ধাঁচের অভিনয় দিয়ে অবস্থান গড়ে তুলেছেন। গত বছর তার অভিনীত ছবি ‘আব্বাস’ আলোচিত হয়। বাঁকবদলের নতুন পথে পা বাড়িয়েছেন তিনি। তাই তো ‘আব্বাস’খ্যাত এ অভিনেতার নতুন ছবি নিয়ে দর্শকের প্রত্যাশার চাপও বেশি। ‘হৃদয়জুড়ে’ কতটা ভিন্নধর্মী ছবি? এর উত্তরে নিরব বলেন, ‘হৃদয়জুড়ে’ নামটি শুনলে সবার কাছে প্রথমে রোমান্টিক ছবি বলে মনে হবে। তবে ছবিতে শুধু প্রেম নয়, ভরপুর অ্যাকশনও রয়েছে। পাশাপাশি মানবিক গল্প উঠে এসেছে। তিনি আরও বলেন, এই গল্পে অভিনয়ের অনেক সুযোগ ছিল। আমাদের সিনেমায় অনেক দিন ধরে মৌলিক গল্পের খুব অভাব। ‘হৃদয়জুড়ে’ সেই অভাব কিছুটা হলেও দূর করবে। ছবিটি দেখার সময় দর্শক একটা ঘোরের মধ্যে থাকবেন।

প্রিয়াঙ্কা সরকারের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে নিরব বলেন, প্রিয়াঙ্কা দারুণ অভিনেত্রী। পরিকল্পনামাফিক, ভেবেচিন্তে, বুঝেশুনে অভিনয় করে। সহশিল্পী যখন ভালো অভিনয় করে তখন নিজের অভিনয়ও ভালো হয়। সব মিলিয়ে তার সঙ্গে কাজটি ছিল গোছানো।

সিনেমাটির গল্পে দেখা যাবে ৪০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত কয়েদির সন্তান অমিতের (নিরব) জন্ম হয় জেলখানায়। পরে নানির কাছে সে বড় হয়। মানবিক ও সরল হৃদয়ের ছেলেটি মানুষের বিপদে-আপদে এগিয়ে আসে। একটি ইউনিভার্সিটি থেকে ভাষাতত্ত্বের ওপর এমফিল করেছে। টিউশনি করে জীবন চলে। নানা টানাপড়েনের মধ্যেও একই বিশ্ববিদ্যালয়ের নীলিমা (প্রিয়াঙ্কা সরকার) নামে একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। একপর্যায়ে অমিত ফেঁসে যায় একটি খুনের মামলায়।

নিরব এখন ‘ক্যাসিনো’ সিনেমার শ্যুটিং করছেন। এর কাজ প্রায় শেষ। এ ছাড়া বন্ধন বিশ্বাসের ‘অফিসার্স রিটার্নস’, ডায়েল রহমানের ‘তিতুমীর’ ও বুলবুল জিলানীর নতুন একটি ছবির কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন তিনি। চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে নিরব বলেন, ‘মাঝে চলচ্চিত্রের অবস্থা বেশ খারাপ ছিল। এখন আবার ভালোর দিকে যাচ্ছে। আমরা আশাবাদী, সামনে আরও ভালো কিছু হবে। সব দিক থেকেই নতুন করে জাগরণ হচ্ছে। দর্শক ছবি দেখছে। ভালো ছবি হলে মানুষ অবশ্যই দেখে। গত বছর পাসওয়ার্ড ছবিই তার বড় প্রমাণ।’