টেকনাফে সরকারী বনের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষনে নবাগত রেঞ্জ কর্মকর্তা

f.jpg

সাদ্দাম হোসাইন / ফরিদুল আলম : টেকনাফে প্রাকৃতিক পাহাড়ি বনজ সম্পদের বিদ্যমান অবস্থা, অবৈধ পাহাড় কর্তন, জবর-দখল করে বসত-বাড়ি তৈরী এবং বনসম্পদ উজাড় পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখা এবং যা অবশিষ্ট রয়েছে তা সমন্বিতভাবে রক্ষার উদ্যোগ গ্রহণের জন্য এলাকার সুশীল সমাজ, সংবাদকর্মী এবং বনবিভাগ আনুষ্ঠানিক পর্যবেক্ষণ শুরু করেছেন।

১৪ ফেব্রæয়ারী বিকালে টেকনাফে নবাগত বন রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ, টেকনাফ সাংবাদিক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা ও প্রবাল নিউজ ডটকমের সম্পাদক-প্রকাশক মমতাজুল ইসলাম মনু, সংবাদকর্মী জসিম উদ্দিন টিপু, মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, হেলাল উদ্দিন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মধ্যে মোস্তফা কামাল, রফিক মুন্সী, আব্দুল আজিজ, নুরুল আজিজ, ফরিদুল আলম, হ্নীলা বিট কর্মকর্তা এ.কে.এম মামুনুর রহমান, এফজি শাহিন আহমেদ ও এফজি মাসুদ পারভেজসহ বন বিভাগের লোকজন ও স্থানীয় গণ্যমান্য,ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সমন্বিত এই পর্যবেক্ষণ দলটি হ্নীলা বিটের মরিচ্যাঘোনা, পানখালী ঢালাপথ, লেচুয়াপ্রাং এলাকায় সরকারী বনভূমির অবস্থা, জবর দখল, পাহাড় কর্তন ও বনের গাছপালা কাটার সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শন এবং স্থানীয় মানুষের সাথে মতবিনিময় করেন। তিনি বিশ^ব্যাপী জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবের ক্ষতিকর দিক তুলে ধরার পাশাপাশি রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে বনভূমির বিরাট ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করেন। তিনি আগামী প্রজন্ম রক্ষা এবং দেশ ও জাতির স্বার্থে এই বনভূমি রক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করেন। অত্র রেঞ্জের পুরো বন পরিদর্শনের পর উপরোক্ত বিষয়ে একটি কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের আশ^াস দেন তিনি। এর আগে তিনি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে বন রক্ষায় এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। ###