উখিয়ায় বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক পাচারকারি নিহত

cf-3.jpg

কায়সার হামিদ মানিক : উখিয়ায় বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক পাচারকারি নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ইয়াবা ও অস্ত্র।
বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালীর পানবাজার এলাকার নাফ নদীর তীরবর্তী কাঁকড়া ব্রীজ সংলগ্ন এলাকার বেড়ীবাঁধে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান বিজিবির কক্সবাজার ৩৪ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।
ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ১লাখ ৪০হাজার ইয়াবা, দেশিয় তৈরি একটি লম্বা বন্দুক ও ৩টি গুলি। নিহত মংকিউ তংচঙ্গা (২৫) বান্দরবান জেলার নাইক্ষংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ী এলাকার চাচিংহ্লা তংচঙ্গার ছেলে।
বিজিবির দাবি, নিহত মংকিউ তংচঙ্গা একজন চিহ্নিত মাদক পাচারকারি। সে মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সংঘবদ্ধ চক্রের মাধ্যমে ইয়াবাপাচারে সক্রিয় ছিল।
লে, কর্ণেল আলী হায়দার বলেন, মিয়ানমার সীমান্তের উখিয়ার বালুখালীর পানবাজার সংলগ্ন নাফ নদীর তীরবর্তী কাঁকড়া ব্রীজ এলাকার বেড়ীবাঁধ দিয়ে ইয়াবার বড় একটি চালান আসার খবরে বিজিবির একটি দল অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে ভোররাত সাড়ে ৩টারদিকে বেড়ীবাঁধ দিয়ে মিয়ানমার দিক থেকে ৫/৬ জন সন্দেহজনক লোককে আসতে দেখে বিজিবির সদস্যরা থামার জন্য নির্দেশ দেয়। এসময় সন্দেহজনক লোকজন বিজিবির সদস্যদের লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলি ছুড়তে থাকে। বিজিবির সদস্যরাও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে সন্দেহজনক ইয়াবা পাচারকারিরা গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে রাতের অন্ধকারে মিয়ানমার দিকে পালিয়ে যায়। পরে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে ১জনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়।
বিজিবির সদস্যরা গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে স্থানীয় লোকজন তার পরিচয় শনাক্ত করেন। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে বলে জানায় বিজিবি।