সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভা ও মিলনমেলা সম্পন্ন

sat.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : বর্ণাঢ্য আয়োজনে কক্সবাজার শহরের ঐতিবাহী সংগঠন সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও মিলনমেলা সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল থেকে বিকাল অবদি কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সাংসদ প্রফেসর ড. আবুরেজা মোঃ নেজামুদ্দিন নদভী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার মানুষ দেশ ছাড়িয়ে বিশ্বময় বিস্তৃত। তারা ব্যবসা বাণিজ্যসহ সব সেক্টরে অন্যান্য স্থানের ন্যায় কক্সবাজারেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে।
তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসী। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় অবহেলিত সাতকানিয়া-লোহাগাড়া এখন উন্নয়নের নগরী। গত ১০ বছরে এখানে রাস্তা-ঘাট, কালভার্ট-ব্রিজ, স্কুল-কলেজসহ অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। ইতোমধ্যে এই জনপদের ২ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন হয়েছে। আরও ৩ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করা হবে। এছাড়া এখানে গড়ে উঠবে এক্সক্লুসিভ ইকোপার্ক। এ জন্য সমীক্ষাও করা হয়েছে। এছাড়া সাতকানিয়া ও লোহগাড়ায় নির্মিত দুটি ফ্লাইওভার। এতে করে রাস্তায় মানুষের ভোগান্তি কমবে।
কক্সবাজারস্থ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব ফরিদ উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য রিজিয়া রেজা চৌধুরী, কক্সবাজার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবির, বেসরকারি কারা পরিদর্শক যুবনেতা মাসুকুর রহমান চৌধুরী বাবু। বক্তব্য রাখেন সাতকানিয়া লোহাগাড়া সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সাবেক সেক্রেটারি জসিম উদ্দিন, কক্সবাজার দোকান মালিক ফেডারেশনের সভাপতি মোস্তাক আহমদ, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জেবর মুল্লুক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাতকানিয়া লোহাগাড়া সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন।
এর আগে সকাল থেকে সমিতির সদস্যদের পদাচারণায় মুখর হয়ে উঠে অনুষ্ঠানস্থল। তাদের সকলকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও মিলনমেলার আহবায়ক মোঃ আবদুর রহমানসহ বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যরা। দুপুরে মেহমান ও সম্মানিত সদস্যদের সম্মানে মধ্যহ্ন ভোজের আয়োজন করা হয়। পরে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।