সেন্টমার্টিনে দূর্যোগে আটকে থাকা পর্যটকেরা ফিরেছে ; উপজেলা প্রশাসনের বরণ

Teknaf-1.jpg

জসিম উদ্দিন টিপু / মোঃ নুর কামাল : টেকনাফে সাগর কন্যা প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমণে আসা পর্যটকেরা ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলের’ প্রভাবে সৃষ্ট দূর্যোগ আবহাওয়ার কারণে আটকে ছিল। দূর্যোগ আবহাওয়া কেটে যাওয়ায় টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তদারকিতে ফিরে এসেছে পর্যটকেরা। নিরাপদে ফিরে আসা পর্যটকদের উপজেলা প্রশাসন ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছে।
১১নভেম্বর সোমবার) দুপুর ২টায় প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে অবস্থানকারী পর্যটকেরা কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইং, এমভি ফারহান এবং এলসিটি কুতুবদিয়ায় করে দমদমিয়া জাহাজ ঘাটে প্রায় ১২শ পর্যটক ফিরে আসে। বিকাল সাড়ে ৪টারদিকে তারা ঘাটে ফিরে আসে। এসময় টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইউএনও মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আবুল মনছুর, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ এমদাদ হোছাইন, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন এবং একাডেমিক সুপার ভাইজার মোহাম্মদ নূরুল আবছার, সার্ভেয়ার মোঃ দেলোয়ার হোসেনসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা জাহাজ ঘাটে উপস্থিত হয়ে ফিরে আসা পর্যটকদের ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন নেন। এসময় উৎফুল্ল পর্যটকেরা উপজেলা প্রশাসনের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
ফিরে আসা পর্যটকদের মধ্যে ঘূর্ণিঝড় আতংকে থাকা রাজিবুল ইসলাম বলেন,গত বৃহস্পতিবার থেকে প্রবালদ্বীপে আটকে ছিলাম। উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্ত¡াবধানে বৈরী আবহাওয়ার মাঝেও সেন্টমার্টিনে ভাল ছিলাম। আল্লাহর রহমতে ৫দিন পর হলেও নিরাপদে ফিরতে পেরেছেন খুবই আনন্দ লাগছে।
ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান,প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের জাহাজে করে নিরাপদে ফেরত আনা হয়েছে।
এদিকে প্রবালদ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকেরা দেশের মূল ভূখন্ডে ফিরে আসার খবরে স্বজনদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে বলে একাধিক পর্যটক জানান। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এসব পর্যটকেরা নিজ নিজ বাড়ি ও গন্তব্যের উদ্দেশ্যে যাত্রা করছে। ###