porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

চকরিয়ায় হাফেজ রুহুল আমিন খুনের আসামিদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন

Chakaria-Picture-14-10-2019.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নে জমি বিরোধের জেরে ভাইয়ের লেলিয়ে দেয়া ভাড়াটে দুর্বৃত্তদের হাতে হাফেজ রুহুল আমিন (৫৭) নামে মাদরাসা শিক্ষক খুনের ঘটনায় ইতোমধ্যে সাতজনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। নিহতের ছেলে মো. এমদাদ উল্লাহ বাদী হয়ে ঘটনার রাতে থানায় মামলাটি করেছেন।
অবশ্য ঘটনার দিন পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারনামীয় আসামি বেলাল উদ্দিন নামের একজনকে গ্রেফতার করলেও এখনো অধরা রয়েছেন মামলার অপর ছয় আসামি। এ অবস্থার প্রেক্ষিতে পালিয়ে থাকা খুনীদের ভয়ে আতংঙ্কে আছেন রুহুল আমিনের পরিবার। তবে পুলিশের দাবী, আলোচিত এ হত্যাকান্ডের ঘটনার সাথে জড়িত মামলার প্রধান আসামী বেলাল উদ্দিনকে ঘটনার পরপর গ্রেফতার করা হয়েছে। জড়িত অপরাপর আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।
এদিকে গতকাল সোমবার বিকালে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া পৌরশহরে কৈয়ারবিল মখজনুল উলুম মাদ্রাসার সাবেক প্রতিষ্টাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন হত্যাকা-ে জড়িত আসামিদের গ্রেফতারপুর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আলেম সমাজ, এলাকাবাসি ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজনের উপস্থিতিতে মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়েছে।
অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন চকরিয়া উপজেলা তানজিমে আহলে হকের সভাপতি ও বরইতলী মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা শোহাইব নোমানী। বক্তব্য রাখেন চকরিয়া জাতীয় ইমাম সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা রহুল কুদুছ আনোয়ারী আল আজহারী, ফাঁসিয়াখালী মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আবদুল মন্নান, চিরিংগা এমদাদুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আনোয়ার আলম,কোরালখালী মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আবদুর রহমান, কাকারা ফারুকিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মোর্শেদুল হক, মাওলানা হাফেজ আবুল হাসেম, মাওলানা হাছন আলী, মাওলানা ছরওয়ার আলম কুতুবী, মাওলানা ইব্রাহিম আজিজী, মাওলানা মনছুর আলম, মাওলানা আহমদ কবির, মাওলানা মোহাম্মদ মুছা প্রমূখ।
মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, গত ৫ অক্টোবর হাফেজ রুহুল আমিনকে জমি বিরোধের জেরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ হত্যাকান্ডে জড়িত রয়েছে নিহতের আপন ভাই মামুন মাস্টারসহ ভাড়াটে দুর্বৃত্তরা। এক আসামি গ্রেফতার হলেও এখনো বেশিরভাগ আসামি অধঁরা রয়েছে। তাই অবিলম্বে অপর আসামিদের গ্রেফতার করতে হবে। অন্যথায় আলেম সমাজ কঠোর কর্মসুচি দেবো।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও চকরিয়া থানার এসআই আব্দুল্লাহ আল মাসুদ বলেন, ইতোমধ্যে হত্যা মামলার এক নম্বর আসামী বেলাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতে আসামি বেলাল জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, হাফেজ রুহুল আমিন খুনের ঘটনায় নিহতের ছেলে বাদী হয়ে সাত জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। মামলার প্রধান আসামী বেলাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারে আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্ঠা অব্যাহত রয়েছে।

Top
bahis siteleri