চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর রূপালি গিটার উদ্বোধন

image-222152-1568823361.jpg

প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে ‘রূপালি গিটার’ প্রতিকৃতির পর্দা আনুষ্ঠানিকভাবে উম্মোচন করেছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

অনলাইন |

জনপ্রিয় ব্যান্ড শিল্পী ও চট্টগ্রামের সন্তান প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে ‘রূপালি গিটার’ প্রতিকৃতির পর্দা আনুষ্ঠানিকভাবে উম্মোচন করা হয়েছে।

বুধবার রাত ৮টায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এই ‘রূপালি গিটার’ ও নগরীর প্রবর্তক মোড়ের নতুন নামকরণ ‘আইয়ুব বাচ্চু চত্বর’ উদ্বোধন করেন।

এ সময় আইয়ুব বাচ্চু চত্বরের আশপাশ ভক্তদের উপস্থিতিতে ভরে ওঠে।

উদ্বোধনকালে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, জনপ্রিয় ব্যান্ড শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি রক্ষার্থে এই রূপালি গিটার স্থাপন করা হয়েছে।

কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি সংরক্ষণে বিশেষ ভূমিকা রাখার অনুরোধ জানিয়ে ভক্তদের উদ্দেশে মেয়র বলেন, এভাবেই প্রত্যেককে দেশ এবং সমাজের জন্য কাজ করে যেতে হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইয়ুব বাচ্চুর সহোদর ইরফান ছট্টু, চসিকের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ রেজাউল করিম, চসিক প্রধান কর্মকর্তা শামসুদ্দোহা এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন সংস্থা স্ক্রিপ্ট অডিওস ইন্ক এর কর্মকর্তাগণ।

চসিক সূত্র জানায়, সোমবার আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুবার্ষিকীর আগেই জনপ্রিয় এ শিল্পীর স্মরণে ১৮ ফুট উচ্চতার ‘রূপালি গিটার’র কালো পর্দা সরিয়ে নেয়া হলে তা একঝলক দেখার জন্য ভিড় জমান ভক্তরা। প্রায় ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয় এই রূপালি গিটার। পুরো অর্থের জোগান হয়েছে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে।

এ প্রকল্পের আওতায় রয়েছে সড়কের বিউটিফিকেশন, ওয়াকওয়ে নির্মাণ, দেয়ালে ম্যুরাল ও সবুজায়ন। দুটি প্রতিষ্ঠান চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে।

গতবছরের ১৮ অক্টোবর না ফেরার দেশে পাড়ি দেন খ্যাতিবান শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। তার জীবদ্দশায় রেখে গেছেন ‘রূপালি গিটার’, ‘সেই তুমি’, ‘হাসতে দেখো’, ‘আমি কষ্ট পেতে ভালোবাসি’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গান।