হ্নীলায় বাল্য বিবাহ ঠেকালেন উপজেলা প্রশাসন

Teknaf-Pic-B-18-08-19.jpg

জসিম উদ্দিন টিপু / মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম/ ফরিদুল আলম : বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ১০৯নং হতে ফোন পেয়ে টেকনাফে বাল্য বিবাহ ঠেকালেন টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন। পর্যাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ে না হওয়ার শর্তে মুচলেকায় ছাড়।

১৮ আগষ্ট দুপুরে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রবিউল হাসান ১০৯নং হতে উপজেলার হ্নীলা নাটমোরা পাড়ার নুরুল হকের মেয়ে ও হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সালমা আক্তার প্রমি (১৪) এর সাথে ঢাকার জনৈক কিশোরের সাথে বাল্য বিয়ের খবর পায়। তখন তিনি উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবুল মনসুর, উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার নুরুল আছার এবং হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামসহ আইন-শৃংখলা বাহিনী উলুচামরী কোনার পাড়ায় মেয়ের ফুফুর বাড়িতে গিয়ে বিয়ে পন্ড করে দেন। তবে উপজেলা প্রশাসনের টীম পৌঁছার আগেই উক্ত কিশোর বাড়ীর পিছন দিয়ে পালিয়ে যায়। স্কুল ছাত্রী প্রমি এবং তার মা সেতেরা বেগমকে ইউএনও অফিসে এনে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়ার পর্যন্ত বিয়ে দিবেনা মর্মে অঙ্গিকার নামা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল হাসান সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেন।