নয়াবাজার স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের সম্মাননা পেলেন মরহুম ডাক্তার ইসহাক খান ও বিশ্বের বিস্ময় নাতি হাফেজ ইয়াসিন

noya.jpg

বার্তা পরিবেশক : মুক্তিযুদ্ধ, শিক্ষা এবং সমাজসেবায় অনন্য অবদান রাখায় এবার শিক্ষাবিদ ডাক্তার ইসহাক খানকে মরণোত্তর সম্মাননা দিয়েছে টেকনাফ নয়াবাজার স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন। এছাড়া আরো ৫ জন গুণীজনকে মরণোত্তর সম্মাননা দেয়া হয়।
মঙ্গলবার সকালে নয়াবাজার স্টেশন চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্টদের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধে অনন্য ভূমিকা রাখায় এবার শহীদ মুক্তিযোদ্ধা হাজী ইউছুপ আলী মেম্বার (মরণোত্তর), শিক্ষা ও সমাজসেবায় নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্টাতা সেক্রেটারি ও নয়াবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক,ডাক্তার ইসহাক খান (মরণোত্তর) মাষ্টার নরুল হোসেন চৌধুরী এবং সমাজসেবায় হাজী আলী মিয়া,মাওলানা আবদুল বারী মাষ্টার সরওয়ার আলমে (মরনোত্তর) সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। ওই ছয়জন ছাড়াও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মরহুম ডাক্তার ইসহাক খানের দৌহিত্র বিশ্বের বিস্ময় ৮৬দিনে কুরআনে হাফেজ ও তানযীমুল উম্মাহ হিফজ ইয়াসিন আরাফাতকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এইচ এসসিতে ২০১৯ ব্যাচ কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল করায় শিক্ষার্থীদেরকে সম্মাননা জানানো হয়েছে।
নয়াবাজর স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের মুবিনুল হক তারেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রাধান অতিথি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড.ফরিদ উদ্দিন আহমদ,প্রাধান আলোচক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড.মতাজ উদ্দিন কাদেরী,বিশেষ আলোচক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড.মো.আমির হোসেন, এডভোকেট মঈনুল হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু রুপন কান্তি বড়ূয়া,মহেশখালীয়া পাড়া বাহারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা সুপার মাওলানা মুফিজ আহমদ ইকবাল, টেকনাফ পৌরসভার প্রধান হিসাব রক্ষক ছৈয়দ হোসাইন সেলিম, নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ফরিদুল আলম প্রমুখ।