চকরিয়ায় মহাসড়ক দখল করে গরু বাজার স্থাপন

Chakaria-Picture-09-08-2019.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক : চকরিয়ায় প্রশাসনের দুই ধরণের আইনের সুযোগে মহাসড়ক দখল করে আবার ভেন্ডিবাজার এলাকায় গরু বাজার চালু করা হয়েছে। স্থানীয় একটি চক্র সরকারি অনুমোদন ছাড়া সেখানে গরু বাজার বসিয়ে অবৈধভাবে বাণিজ্য করলেও এবছর স্থানীয় সচেতন মহল সড়ক দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকায় বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে।
এ অবস্থার প্রেক্ষিতে গতমাসে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় মহাসড়ক দখল করে আবার ভেন্ডিবাজার এলাকায় গরু বাজারটি বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে ভেন্ডিবাজারের পাশে রসিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি ও বিদ্যালয় কতৃপক্ষের মতামতের ভিত্তিতে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সুপারিশের প্রেক্ষিতে বিদ্যালয় মাঠে অস্থায়ী ভিত্তিতে কোরবানি গরু বাজার বসাতে অনুমতি দেন উপজেলা পরিষদ।
অভিযোগ উঠেছে, রসিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অস্থায়ী ভিত্তিতে কোরবানি গরু বাজার বসাতে অনুমতি দেয়ার ঘটনায় ভেন্ডিবাজার ভিত্তিক চক্রটি সংক্ষুদ্ধ হন। তাঁরা সেখানে সংঘাতের আশঙ্কা দেখিয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। পরবর্তীতে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান অফিস আদেশে মহাসড়ক দখল করে ভেন্ডিবাজার এলাকায় গরু বাজার ও পাশের রসিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুমতি দেয়া অস্থায়ী কোরবানি বাজার দুইটি বন্ধ রাখতে দুইপক্ষকে নোটিশ দেন।
অনুমতি পাওয়া রসিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অস্থায়ী কোরবানি বাজার পক্ষের আবেদনকারী উপজেলা যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন হেলালী ও ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি হাসনাত ইউছুপ অভিযোগ তুলেছেন, উপজেলা প্রশাসনের জারি করা অফিস আদেশ মতে আমরা আমাদের বাজারটি বন্ধ রেখেছি। কিন্তু প্রশাসনের নিষেধ থাকা সর্ত্বেও অনুমোদন ছাড়া মহাসড়ক দখল করে ভেন্ডিবাজার এলাকায় গরু বাজার বসিয়ে স্থানীয় ওই চক্রটি আগের মতো অবৈধভাবে বাণিজ্য শুরু করেছে।
স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, প্রশাসনের দুই ধরণের আইনের কারণে অভিযুক্ত চক্রটি আগের মতো মহাসড়ক দখল করে ফাসিয়াখালী ভেন্ডিবাজার এলাকায় আবারও অবৈধভাবে গরু বাজার চালু করেছে। এতে প্রশাসনের ভুমিকা নিয়ে জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। জনগনের প্রশ্ন, চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন কী এতটাই দুর্বল। ##