bahis siteleri deneme bonusu veren siteler bonusal casino siteleri piabet giriş piabet yeni giriş
izmir rus escortlar
porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

তুমব্রু ইউনিয়ন পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা রোকসানা শ্রেষ্ঠত্বের ২টি সম্মাননা ক্রেষ্ট অর্জন

N.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী : নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের ‘পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা রোকসানা পার ইয়াসমীন শ্রেষ্ঠ পরিদর্শিকা ও তুমব্রু ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র হিসেবে শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতি বছর প্রসব পূর্ব সেবা, প্রসব সেবা ও প্রসব পরবর্তী সেবা, শিশু, কিশোর ও কিশোরী প্রজনন সেবা এবং জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতির উপর সেবা প্রদানের উপর নির্ভর করে শ্রেষ্ঠ পরিদর্শিকা নির্বাচন করে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়। এতে শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা ও শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত করার গৌরব অর্জন করেন রোকসানা পার ইয়াসমিন। চলতি বছরে
এসব কাজে শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ দিয়ে সেরা পরিদর্শিকার স্থান দখল করে নিচ্ছেন রোকসানা পার ইয়াসমীন।
শ্রেষ্ঠ হওয়ার জন্য ১১ জুলাই (বৃহস্পতিবার ) উপজেলার সভা কক্ষে তার হাতে সম্মাননা স্বারক তুলে দেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো, শফি উল্লাহ ও নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি। এসময়
উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান মেম্বার, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা: মাহাফুজ রহমান, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা দ্বিতীয় ময় চাকমা, সূর্যের হাসি ক্লিনিকের ম্যানেজার রাতুলসহ স্থানীয় সাংবাদিক ও গন্যমান্য এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে পরিবার পরিকল্পনা জনগনের মতায়ন, জাতীর উন্নয়ন” এ শ্লোগানে নাইক্ষ্যংছড়িছতে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালনের মধ্যো দিয়ে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যলয়ের আয়োজনে ও সূর্যের হাসি ক্লিনিকের সহযোগীতায় উপজেলা মুক্তমঞ্চ চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করে উপজেলা গুরুত্বপূর্ণ প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া অফরিন কচি সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির অধ্যাপক মো: শফিউল্লাহর উপস্থিতিতে জনসংখ্যা দিবসে জনসংখ্যা বৃদ্ধি হ্রাস ও শিশু মৃত্যুহার হ্রাসে বিশেষ অবদান সরূপ হিসেবে নাইক্ষ্যংছড়ি সদর শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন নির্বাচিত হওয়ায় চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরীকে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করেন।
রোকসানা পার ইয়াসমিন বলেন, ‘মানুষকে সেবা প্রদানের জন্যই কাজ করি। পুরুষ্কার পাওয়া আনন্দের এটাই সত্য। এই আনন্দ এবং সুনাম ধরে রাখতে আরো কাজ করে যেতে চাই। এজন্য সকলের সহযোগিতা দরকার। এই সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখে কাজ করতে চেষ্টা করবো।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top
antalya escort bursa escort adana escort mersin escort mugla escort