porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

টপ ফেভারিট অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

eng_final.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : চলতি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে ২৭ বছর পর ফাইনালে পা রাখল ইংল্যান্ড। এর আগে ১৯৭৯, ৮৭ ও ৯২ এর বিশ্বকাপে ফাইনাল খেললেও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি দলটি। ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে আট উইকেটের বিশাল ব্যবধানে অজিদের হারিয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে ফাইনাল নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই অস্ট্রেলিয়া তিন উইকেট হারিয়ে বসে। সেই ধাক্কা অভিজ্ঞ স্মিথের ব্যাটে সামলে উঠলেও অজিদের ইনিংস থেমে যায় ২২৩ রানে। জেসন রয়, রুট ও মরগ্যানদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৩২ ওভার ১ বলেই ম্যাচ জিতে যায় ইংলিশরা। সর্বোচ্চ ৮৫ রান করে আউট হন রয়। রুট ৪৯ ও মরগ্যান ৪৫ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

আজ বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় দুই দলের মধ্যে ফাইনালের লড়াই শুরু হয়। আর এতে শুরুতেই দুই অজি ওপেনারকে ফিরিয়ে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ফিঞ্চকে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে পাঠান আর্চার। নিজের প্রথম বলেই এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ফিঞ্চকে ফেরান ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত এই বোলার।

ফিঞ্চের পথ অনুসরণ করে সাজঘরের পথ ধরেন ডেভিড ওয়ার্নারও। তার ব্যাট থেকে আসে মাত্র ৯ রান। বাঁহাতি এই ভয়ংকর ব্যাটসম্যানকে ফেরান ক্রিস ওকস। এই দুইজন দ্রুত ফিরে গেলে দলের হাল ধরার চেষ্টা করছিলেন স্টিভেন স্মিথ ও পিটার হ্যান্ডসকম্ভ। কিন্তু বিপদের মুহূর্তে হ্যান্ডসকম্ভ (৪) আউট হয়ে দলকে আরও বিপদে ফেলেন। তবে সিম্থ লড়াই করেন শেষ পর্যন্ত।

৮৫ করে রানআউট হয়ে যখন যাচ্ছিলেন তখন ৪৮ তম ওভারের খেলা চলে। অ্যালেক্স কারে ৪৬ রান করে তাকে সঙ্গ দিয়েছিলেন। স্মিথ-কারে জুটিতেই মূলত সম্মানজনক রান গড়তে পারে অজিরা। এ ছাড়া গ্ল্যান ম্যাক্সওয়েল ২২ ও মিচেল স্টার্ক ২৯ রান করেন।

সর্বোচ্চ তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন ক্রিস ওকেস ও আদিল রশিদ। জোফরা আর্চার দুটি ও মার্ক উড নেন একটি উইকেট।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top
bahis siteleri