bahis siteleri deneme bonusu veren siteler bonusal casino siteleri piabet giriş piabet yeni giriş
izmir rus escortlar
porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

উখিয়ায় নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের নামে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দালাল চক্র !

Biddut-715x400.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি : উখিয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নামে কতিপয় চিহ্নিত দালাল চক্র লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার হলদিয়া পালং ২নং ওয়ার্ডের পাগলির বিল ছায়া খোলা নামক গ্রামে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নামে টাকা হাতিযে নিচ্ছে দালাল চক্ররা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, প্রধান মন্ত্রীর উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ এ কর্মসূচীর আওতায় সারাদেশের ন্যায় উখিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে নতুন বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে।

প্রান্তিক ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষকে বিদ্যুৎ সেবা পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে গেলেও স্থানীয় কিছু চিহ্নিত দালাল চক্র এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে হত দরিদ্র পরিবারের নিকট হতে হাতিযে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। এতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে জড়িত রয়েছে বিদ্যুৎ অফিসের লাইন সম্প্রসারণ কাজের ঠিকাদার ও ফোর ম্যান। সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে নানা অজুহাত দেখিয়ে ওই দালাল চক্র এ কাজটি করে যাচ্ছে বলে অনেকের অভিমত।

খোঁজখবর নিয়ে জানা যায়, হলদিয়া পালং ইউনিয়নের ছায়া খোলা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় প্রায় ১৫০টি পরিবার রয়েছে। ওই গ্রামের সুবিধা বঞ্চিত পরিবারে নতুন বিদ্যুৎ পৌছে দিতে সম্প্রতি বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় কাজ শুরু করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন গ্রামবাসী অভিযোগ করে বলেন, নতুন বিদ্যুৎ লাইনের সংযোগের নামে ২হাজার ৫ শত টাকা থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত প্রতিটি পরিবার থেকে আদায় করছে। স্থানীয় দালাল মীর আহমদ ও আদর মিয়া সহ কয়েকজন সংঘবদ্ধ দালাল চক্র জোরপূর্বক বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে উৎকোচের টাকা উত্তোলন করছে। নতুন গ্রাহকরা এক অভিযোগে জানান, স্থানীয় বিএনপি নেতা সাবেক মেম্বার সাইফুল্লাহ সিকদার দালাল চক্রের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে বিপুল পরিমান টাকা আদায় করেছে পল্লী বিদ্যুৎ অফিস ও ঠিকাদারের দেওয়ার নামে।

অভিযোগে আরও জানা গেছে, ঠিকাদার রোকন ও ফোর ম্যান ইয়াসিনের সাথে সাবেক মেম্বার সাইফুল্লাহ সিকদারের সখ্যতা রয়েছে। এ সুবাধে ঠিকাদার ও ফোর ম্যানকে দিতে হবে এমন কথা বলে আদায়কৃত টাকা স্থানীয় ফয়েজের দোকানে জমা রাখা হয়।

স্থানীয় জনগনের অভিমত সরকার বিনা খরচে প্রান্তিক এলাকায় নতুন বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারন ও সংযোগ দেওয়ার কথা থাকলেও কতিপয় চিহ্নিত দালাল চক্র এ সুযোগে জোর পূর্বক টাকা আদায় করা খুবই দু:খ জনক। তারা আরও বলেন, কেউ টাকা দিতে অনিহা প্রকাশ করলে তাকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেয়। ফলে বাধ্য হয়ে অসহায় গরীব মানুষ টাকা দালালদের হাতে তুলে দেয়।

এ ব্যয়পারে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নির্বাহী প্রকৌশলী জসিম উদ্দিন মুন্সির সাথে যোগাযোগ করলেও মোবাইল সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে উখিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্তৃপক্ষ জানান, বিদ্যুৎ সংযোগ নামে দালালের হাতে কেউ টাকা দিয়ে থাকলে সেটা জন্য আমরা দায়ী নয়। কেবল রশিদ দিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি টাকা গ্রহণ করে।

স্থানীয় জনগন বিদ্যুৎ সংযোগের নামে বিপুল পরিমান টাকা নিরহ ব্যক্তির নিকট হতে আদায়কারী চিহ্নিত দালাল চক্রদেরকে সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিকট দাবী জানিয়েছেন।#

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top
antalya escort bursa escort adana escort mersin escort mugla escort