বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি : কক্সবাজার সৈকত হতে ৬লাশ উদ্ধার

trolar_coxbazar.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে সাগর থেকে ভেসে আসা একটি ফিশিং ট্রলার থেকে ছয় জেলের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় দুজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। আজ বুধবার সকাল ৮টার দিকে সৈকতের সীগাল পয়েন্ট থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তবে জীবিত দুজনের নাম- রাসেল ও জুয়েল বলে জানা গেছে। তাদেরকে মুমূর্ষু অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের প্রত্যেকের শরীরে কোনো ধরনের বস্ত্র নেই এবং অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ পঁচে দুর্গদ্ধ বের হয়েছে। মৃতদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাসেল ও জুয়েল জানিয়েছেন, ট্রলারটি ভোলা জেলার চরফ্যাশন এলাকার মিন্টু নামে এক ব্যক্তির।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) মো. খায়রুজ্জামান বলেন, ‌ভোরে সৈকতে লাশ ভেসে আসতে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে জানান। এরপর পুলিশ সৈকতের সিগাল পয়েন্ট থেকে প্রথমে চার ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করে। সকাল সাতটার দিকে সৈকতে কাছে আটকে পড়া একটি মাছ ধরার ট্রলারের পাশ থেকে আরও দুই ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এ সময় ট্রলারের আশপাশ থেকে ভাসমান অবস্থায় দুই ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, পাঁচ দিন আগে ভোলার চরফ্যাশন থেকে একটি ট্রলার নিয়ে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে নামেন স্থানীয় ১৫ জন জেলে। ট্রলারটি কক্সবাজার উপকূলে মাছ ধরতে এসে ঝোড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে। একসময় ট্রলারটির ইঞ্জিনও বিকল হয়ে যায়। প্রাণ রক্ষার্থে জেলেরা সাগরে ঝাঁপ দেন। কিন্তু সাগর উত্তাল থাকায় উপকূলে আসতে পারেননি তারা। আজ ভোরে ট্রলারটি জোয়ারের ধাক্কায় ভেসে কক্সবাজার সৈকতের কাছে চলে আসে।

চার দিন ধরেই উত্তাল বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার উপকূল। জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে চার ফুট উচ্চতায় বৃদ্ধি পেয়ে উপকূলে আঘাত হানছে। কক্সবাজার উপকূলে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত বলবৎ আছে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার জেলা বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক জানিয়েছেন, গত ২০ মে থেকে টানা ৬৫ দিনের জন্য বঙ্গোপসাগরে সরকারের ‘মাছ ধরা বন্ধ’ কর্মসূচি চলছে। এ কারণে জেলার টেকনাফ, কক্সবাজার সদর, মহেশখালী, কুতুবদিয়া ও চকরিয়া উপজেলার প্রায় ছয় হাজার ট্রলার বঙ্গোপসাগরে নেই। সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে উত্তাল ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় মাছ ধরতে গিয়ে ভোলার এই ট্রলার দুর্ঘটনায় পড়ে এবং হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটে।