পৌর মেয়র শিক্ষা বৃত্তির পুরস্কার বিতরণে বক্তারা : টেকনাফের বদনাম ঘুচাতে মাদক নির্মূল আর শিক্ষার আলো জ্বালাতে সবাই এগিয়ে আসুন!

Teknaf-Pic-B-10-06-19-1.jpg

হুমায়ূন রশিদ / গিয়াস উদ্দিন ভূলু : টেকনাফে পৌর মেয়র বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ সমপন্ন হয়েছে।
১০ জুন সকাল ১১টায় টেকনাফ পৌরসভা চত্বরে পৌর মেয়র শিক্ষা বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান পৌর মেয়র হাজী মোঃ ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলম বাহাদুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভসপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল হাসান, টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এমদাদ হোছাইন চৌধুরী, একাডেমিক সুপার ভাইজার নুরুল আবছার। উক্ত অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর প্যানেল মেয়র-২ আবদুল্লাহ মনির, ওয়ার্ড কাউন্সিলর এহতেশামুল হক বাহাদুর, আবু হারেছ, মহিলা কাউন্সিলর নাজমা আলম, দিলদার বেগম, দিলরুবা খানম, পৌর সচিব ফয়েজ উদ্দিন ফরাজী, মোর্শেদুল ইসলাম, মেয়র বৃত্তি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাষ্টার আব্দুল আলীম ও মোঃ ওসমানুল কবির, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও মিডিয়াকর্মীরা।
টেকনাফে পৌর মেয়র শিক্ষা বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, মাদক ও চোরাচালানের আক্রান্ত এবং রোহিঙ্গাদের উৎপাতে অতিষ্ঠ টেকনাফ বাসীর চরম দুঃসময় চলছে। অনেকে মাদক ব্যবসায়ীদের বিভিন্নভাবে সহায়তা করে সুবিধা নিয়ে এখন সাধুতার পরিচয় বহন করছেন। এ প্রসঙ্গে কঠোর হুশিয়ার উচ্চারণ করে প্রধান বক্তা সাবেক এমপি আব্দুর রহমান বদি মাদক কারবারীদের প্রতি ঘৃণা জানিয়ে বলেন, আমার পরিবারের কেউ হোক আর অন্যান্য যারা মাদক ব্যবসার টাকা দিয়ে ঝোঁল খেয়েছেন ; তাদের রক্ষা নেই। তাদেরও আইনের আওতায় আসতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন এখন সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির আলোকে অব্যাহত মাদক বিরোধী অভিযান এবং বন্দুক যুদ্ধের পরও কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে মাদকের চালান আসছে। এসব মাদকের কারণে অত্র এলাকার ছেলে-মেয়েরা শিক্ষা দীক্ষায় অনেক পিছিয়ে রয়েছে। আমাদের দূর্নাম বহনের পাশাপাশি পদে পদে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। আমরা সকলের উচিত সীমান্ত উপজেলার দূর্নাম ঘুচিয়ে শিক্ষার আলো জ্বালিয়ে আবারো স্বগৌরবে ঘুরে দাড়াতে হবে। তাহলে সবাইকে দলমত নির্বিশেষে নিজ নিজ অবস্থান থেকে মাদকের বিরুদ্ধে দূর্বার প্রতিরোধ গড়ে ছেলে-মেয়েদের অন্তরে শিক্ষার আলো জ্বালিয়ে বিরাজমান অন্ধকার দূর করতে হবে। বর্তমানে টেকনাফ উপজেলায় শিক্ষার আলো জ্বালাতে অনেক ব্যক্তিগত, স্বেচ্ছাসেবী, প্রাতিষ্ঠানিক বৃত্তি চালু করে শিক্ষার আলো জ্বালাতে তৎপর রয়েছে। টেকনাফ পৌর মেয়র বৃত্তি পরীক্ষা জ্ঞানের আলো জ্বালাবার তেমনই একটা মহৎ উদ্যোগ। এই ধরনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। আগামীতে এই বৃত্তি পরীক্ষা আরো সম্প্রসারণ করার আহবান জানানো হয়।
আগত অতিথিবৃন্দদের ফুলের তোড়া দিয়ে বরণের পর স্বাগত বক্তব্যে পৌর মেয়র শিক্ষা বিস্তারে স্বদিচ্ছার কথা তুলে ধরে আগামীতে এই বৃত্তি পরীক্ষার পরিধি আরো বাড়াতে সকলের সহায়তা কামনা করেন। শেষে বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে নগদ টাকা, বৃত্তির সনদ, ক্রেস্ট,স্কুল ব্যাগ ও বিভিন্ন প্রকার শিক্ষা সামগ্রী উপহার তুলে দেন। উপস্থিত অতিথিবৃন্দ টেকনাফের হারানো গৌরব ফেরাতে ঐক্যবদ্ধভাবে মাদক নির্মূল ও শিক্ষা বিস্তারের সবাইকে কাজ করার আহবান জানিয়ে উপরোক্ত কথা সমুহ বলেন।