porno porn
izmir rus escortlar
porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

কুকুর কামড়ালে কী করবেন?

dog_bite-1.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : রাস্তায় কুকুর ঘেউ করে উঠলে অনেকেই আতঙ্কে দৌঁড় দেন। এতে কুকুরের কৌতুহল আরও বেড়ে যায় এবং সেও পিছু নেয় ওই ব্যক্তির। এক পর্যায়ে তাকে আক্রমণও করে বসে সে। এর কামড় অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক এবং মারাত্মক। তাছাড়া কুকুরের কামড় থেকে জলাতঙ্ক রোগ হওয়ার আশঙ্কা থাকে। রেবিস নামের ভাইরাস থেকে এই জলাতঙ্ক রোগ হয়ে থাকে।

জলাতঙ্ক একটি স্নায়ুর রোগ। রেবিস ভাইরাস কুকুরের লালা থেকে ক্ষতস্থানে লেগে সেখান থেকে শরীরে প্রবেশ করে। যদি সময় মতো চিকিৎসা করানো না যায়, তাহলে জলাতঙ্কের কারণে ব্যক্তির মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। তবে কুকুর কামড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে পারলে জলাতঙ্ক থেকে বাঁচা সম্ভব।

চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক, কুকুর কামড়ালে যা করবেন…

* প্রথমেই ক্ষতস্থানটি চেপে ধরে কিছুক্ষণ রাখুন। এতে রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যাবে।

* এরপর একটি পরিষ্কার তোয়ালে বা কাপড় দিয়ে ক্ষতস্থানটি ভাল করে পরিষ্কার করুন। এ সময় অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করতে পারেন। তবে ক্ষতস্থান পরিষ্কার করার সময় খুব বেশি ঘষাঘষি না করাই ভাল।

* ক্ষতস্থানটিতে অ্যান্টিবায়েটিক ক্রিম বা অয়েন্টমেন্ট লাগিয়ে তারপর একটি গজ দিয়ে ভাল করে বেঁধে ফেলুন। ক্ষতস্থান খোলা থাকলে জীবাণুর সংক্রমণের আশঙ্কা থাকে।

* প্রাথমিক চিকিৎসার পর যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী, প্রয়োজনে টিটেনাস ইনজেকশন দিতে হবে। কুকুর কামড়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই ইনজেকশন দেওয়া উচিত। রাস্তার কুকুরের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে পরবর্তী ওষুধ, ইনজেকশন বা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা অবশ্যই করাতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri