প্রধানমন্ত্রীর নামে মিথ্যাচার ছড়াচ্ছে কিছু বেনামী মিডিয়া, সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ

-1.jpg

নিউজ ডেস্ক : রাজধানীর এয়াপোর্ট রোডে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত শিক্ষার্থীদের মৃত্যুর ঘটনায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আবেগ ও অনুভূতিকে অপব্যবহার করে আন্দোলনের নামে দেশকে অস্থিতিশীল করায় পায়তায়া করছে কিছু কুচক্রী মহল। ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বিভিন্ন বেনামী ও অখ্যাত অনলাইন মিডিয়াগুলো ভুয়া, ভিত্তিহীন ও মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারকে বেকায়দায় ফেলার নোংরা পরিকল্পনা করছে।

সড়ক ব্যবস্থাপনা নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পাশে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নিজেই পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন, সেখানে বেনামী অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর নামে অসত্য, অযৌক্তিক ও মিথ্যাচার ছড়িয়ে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

তাই বেনামী ও অখ্যাত অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোর বানোয়াট তথ্যে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষদের সতর্ক থাকার অনুরোধ করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে। ২ আগষ্ট প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্রেস সচিব ইহসানুল করিম স্বাক্ষরিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সবাইকে সচেতন ও সতর্ক থাকার অনুরোধ করা হয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিভিন্ন অখ্যাত ও বেনামী অন লাইন সংবাদ মাধ্যমগুলো সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে দেশের পরিস্থিতি উত্তাল করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে। এরই অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও অগ্রণযোগ্য সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিবেশন করে দেশের সম্প্রতি নষ্ট করার চেষ্টা করছে। তাই শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষকে কুচক্রীদের ছড়ানো বিভ্রান্তি থেকে সতর্ক থাকার অনুরোধ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, প্রধানমন্ত্রী নিজে শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখছেন। শিক্ষার্থীদের সাথে যাতে দুর্ব্যবহার না করা হয় সেই বিষয়ে প্রশাসনকে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। জনদুর্ভোগ ও সাধারণ মানুষের কষ্ট বিবেচনা করে আন্দোলনকারীদের বুঝিয়ে-শুনিয়ে ঘরে ফিরে যাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।