টেকনাফে ইসলামাবাদ মসজিদের ইমামের বিরুদ্ধে মুসল্লীদের গুরুত্বর অভিযোগ

ovijog-tt_20.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি :
টেকনাফ পৌরসভার ইসলামাবাদ মসজিদের ইমামের বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারী ও মিয়ানমার নাগরিক হিসাবে পদ হতে বহিস্কারের দাবীতে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ প্রদান করেছেন এলাকাবাসী। উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইউএনওর নির্দেশে তদন্তেও অভিযোগের স্বপক্ষে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। তবে একটি প্রভাবশালী মহল অভিযুক্ত মৌলানাকে স্বপদে রাখতে জোর তদবির চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।
জানা যায়, গত ১৫ ই মে ইসলামাবাদ এলাকার মুসল্লিরা এলাকার মসজিদের ইমাম মো. ইউনুচের বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারী, চরিত্রহীনতা ও মিয়ানমার নাগরিক হওয়ার অভিযোগ এনে ইউএনও বরাবরে অভিযোগটি প্রদান করেন। উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সুপারভাইজার মু. আবু বকর রফিককে তদন্ত সাপেক্ষে মতামত প্রদানের দায়িত্ব দেন। গত ২৭ মে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে মতামত প্রদান করেন।
এতে তিনি অভিযোগের সত্যতা পান বলে উল্লেখ করে একজন যোগ্য ইমাম নিয়োগ দানের সুপারিশ করেন।
এছাড়া মেয়াদোর্ত্তীণ পরিচালনা কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে এলাকাবাসী, মুসল্লী ও জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠনের সুপারিশ করেন।

এদিকে স্থানীয় সাবেক কাউন্সিলর বিএনপি নেতা হাসান আহমদ উক্ত ইমামকে স্বপদে রাখতে দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন বলে জানা গেছে।

অভিযোগকারী মুসল্রি শব্বির আহমদ জানান, তদন্তে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ার পরও প্রভাবশালীদের ইন্ধনে উক্ত ইমাম জোর পূর্বক মসজিদে অবস্থান নিয়েছেন। আমরা তার অপসারণ চাই।