ব্যানার পোস্টারের পরিবর্তে গুজবেই একমাত্র প্রচারণা বুলবুলের

Rajshahi-1Sm20180724195633.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক :
ব্যানার পোস্টারের পরিবর্তে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে গুজবকেই হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে বিএনপির মেয়র প্রার্থী বুলবুল। কখনো বিএনপির প্রার্থীকে গুলি, তার ভাইকে গুলি, গ্রেপ্তার আবার গাড়ি বহরে হামলা নিয়ে দিনভর নানা গুজব ছিল নগরজুড়ে।

বৃহস্পতিবার সকালে গুজবের মধ্যে অন্যতম ছিল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের গাড়িতে হামলা। পর্যটন মোটেলের সামনে তার গাড়ি বহরে হামলা হয়েছে বলে গুজব ছড়ানো হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায় এটি আসলে ভুয়া খবর।

গয়েশ্বর দুপুরে রাজশাহী ত্যাগ করেছেন। এ সময় গাড়িবহর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে গুজব ছড়ানো হয়। ওই গাড়ি বহর থেকেই কে বা কারা সাংবাদিকদের খবর দেয়। পরে সেটিও গুজব বলে জানা যায়। সন্ধ্যার দিকে খবর আসে বিএনপি প্রার্থীকে কে বা কারা গুলি করেছে । একই সময়ে তার ভাইকেও গুলি করার খবর আসে। যার কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। এভাবেই নানা ধরনের গুজব প্রতিনিয়ত ছড়ানো হচ্ছে। আর এ সকল গুজবে বিভ্রান্তিতে পড়ছেন ভোটার ও সাংবাদিকরা।

১০ জুলাই আনুষ্ঠানিক ভাবে নির্বাাচনী প্রচারণা শুরু হলেও কর্মী সঙ্কটের কারণে নির্বাচনী মাঠে বুলবুলের অংশগ্রহণ ছিল শূণ্য। ব্যানার পোস্টার লাগানোর লোকের অভাবে পরতেও দেখা যায়। নগরী ঘুরে কোথাও চোখে পড়ার মত ব্যানার পোস্টার দেখতে পাওয়া যায় নি বুলবুলের। অন্যান্য প্রার্থীর ব্যানার আর পোস্টারের মধ্যে ধানের শীষের ব্যানার পোস্টার চোখেই পড়ে না। প্রচার প্রচারণায় তাই গুজবকেই হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছেন বুলবুল।

সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকেই বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের প্রচার সেল থেকে এ ধরণের গুজব ছড়ানো হচ্ছে। প্রচার প্রচারণায় বস্তিবাসীর মাঝে বস্তি উচ্ছেদের গুজব ছড়িয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে বস্তিবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বস্তিতে গিয়ে এটি গুজব বলে তাদের আশ্বস্ত করেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী লিটন বলেন, একের পর এক মিথ্যাচার করে যাচ্ছে বিএনপি। মিথ্যাচার ও গুজবে কান না দেয়ার জন্য তিনি নগরবাসীর প্রতি আহবান জানান।

এদিকে গুজব ছড়ানো বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে বিএনপির একাধিক নেতা এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেন নি।