টেকনাফের নাজিরপাড়া বিজিবি সড়কটি মরণ ফাঁদে পরিণত যে কারণে উন্নয়নের ছোয়া লাগছেনা

Teknaf-pic-tt-24.07.jpg

মোঃ আশেকউল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ :
টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড নাজির পাড়া, মৌলভী পাড়াসহ অন্যান্য পাড়াসমূহ উন্নয়নের ছোয়া লাগলেও নাজির পাড়া, বর্ডারগার্ড (বিজিবি) সীমান্ত ফাঁড়ির যাতায়াতের একমাত্র সড়কটি মরণ ফাঁদে পরিণত। উন্নয়নের ছোয়া লাগছেনা বর্তমান সরকারের আমলেও। যার কারণে নাজির পাড়াস্থ সীমান্ত ফাড়ির কর্তব্যরত বিজিবির জোয়ানদের যাতায়াত এবং মালামাল পরিবহণ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। সম্প্রতি এ প্রতিবেদক পেশাগত দায়িত্ব পালনে নাজিরপাড়া সরেজমিন পরিদর্শন করতে গেলে ্ এ দৃশ্যটি চোখে পড়ে। খোজ নিয়ে জানা যায়, এ ওয়ার্ডের নাজির পাড়া মৌলভীপাড়া ও হাবিবপাড়াসহ যে ক’টি পাড়া আছে তার মধ্যে প্রায় পাড়ার অলিতে গলিতে উন্নয়নের ছোয়া ধুলা লাগলে ও নাজির পাড়া বিজিবি সীমান্ত ফাঁড়ির সড়কটি বেহাল অবস্থার পড়ে আছে। লাগছেনা উন্নয়নের ছোয়া। এ সড়ক ছাড়া বিকল্প যাতায়াতের কোন সড়ক না থাকায় বিজিবির জোয়ানেরা এবং মালামাল পরিবহণ কাজে বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুকি উপেক্ষা করে এমরণ ফাঁদ সড়কটি ব্যবহার করতে হয়। অপরদিকে চোরাচালান দমন এবং আইন শৃংখলা পরিস্থিতি রক্ষার স্বার্থে এ সড়কটি উন্নয়নের দাবী রাখে। নাজির পাড়ার প্রধান সড়ক থেকে বিজিবি সীমান্ত ফাঁড়ি পর্যন্ত প্রায় ৮শ মিটার সড়কটি দূরত্ব এবং সম্পূর্ণ কাঁচা। বৃষ্টি হলেই সড়কটি যাতাযাত অযোগ্য হয়ে পড়ে। সড়কে পাশ দিয়ে খাল বয়ে গেছে বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত। খালে গাইড ওয়াল না থাকায় বিজিবির ক্যাম্পের সীমানা প্রাচীর প্রবল বর্ষন ও ঢলে খালের সাথে একাকা র হওয়ার আশংখা দেখা দিয়েছে। আজ এক যোগ অতিবাহিত হতে চলেছে চোরাচালান দমন ও আইন শৃংখলা উন্নয়নের স্বার্থে এ গুরুত্বপূর্ণ সড়কের উন্নয়নের ছোয়া লাগছেনা। উল্লেখ্য নাজির পাড়া ও মৌলভী পাড়া মাদকের ঘাটি হিসাবে পরিচিত। সড়কটি চলাচলে অযোগ্য রেখেই মাদক ব্যবসায়ীরা এর ফায়দা হাসিল করছে। চোরাচালান দমন এবং স্থানীয় আইন শৃংখলা উন্নয়নের স্বার্থে বিজিবি সড়কটি উন্নয়ন নিতান্ত প্রয়োজন। এ ব্যাপারে টেকনাফ ২ বর্ডারগার্ড (বিজিবি) অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আসাদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, সড়কটি চলাচলে অতীব ঝুঁকিপূর্ণ এবং চোরাচালান দমন ও আইনশৃংখলা উন্নয়নের স্বার্থে সড়কটি উন্নয়ন দাবী রাখে।