উখিয়ায় থানা পুলিশের পৃথক অভিযানে আটক-২

arrest-3456.jpg

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া।
উখিয়া–টেকনাফে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা বাহ্যিক আয়ের লোভে পড়ে বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়েছে। এদের কারণে স্থানীয়রাও বিপদগামী হচ্ছে।
মঙ্গলবার সকালে জাল টাকা লেনদেন করার সময় উখিয়া থানা পুলিশের উপ- পুলিশ পরিদর্শক নুরুল হক ও সোহেলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাতে নাতে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। পুলিশ জানিয়েছে পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালীর হাকিম পাড়া ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় থেকে কলিমুল্লার ছেলে ইউনুছকে (২১) আটক করা হয়। তার দেহ তল্লাসি করে ৯৩ টি ১ হাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানান, ইয়াবা পাচারকারী রোহিঙ্গা চক্র এসব জাল নোট বাজারে ছড়াচ্ছে। উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ খাইরুজ্জামান জানান, তার বিরুদ্ধে ২৫ এ স্পেশাল পাওয়ার ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। অপরদিকে উখিয়ার পালংখালী সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবাকারবারী হেলালকে পুলিশ সোমবার গভীর রাতে জামতলী রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প থেকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। পুলিশি গ্রেপ্তার এড়াতে মাদক বিরোধী অভিযান থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সে দীর্ঘ দিন ধরে আত্নগোপনে ছিল। উখিয়া থানার এ এস আই শাহ আলম জানান, হেলাল উদ্দিন জামতলী ক্যাম্পে অবস্থান করে এক রোহিঙ্গা যুবতীর সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার সময় রোহিঙ্গারা তাকে আটকিয়ে রেখে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে আটক করে। উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, তার কাছ থেকে অবৈধ কিছু না পাওয়ার কারণে তাকে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করা হবে।