দ. কোরিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে নিহত-৪১

south-korea-20180126152009.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : দক্ষিণ কোরিয়ার একটি হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১ জন। গত ১৫ বছরের মধ্যে এই অগ্নিকাণ্ডকে সবচেয়ে ভয়াবহ বলে উল্লেখ করেছে কর্তৃপক্ষ। রাজধানী সিউল থেকে ২৭০ কিলোমিটার দূরে মিরিয়ং শহরের সেজুং হাসপাতালে শুক্রবার এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর বিবিসি।
অগ্নিকাণ্ডে ৮০ জনের বেশি মানুষ আহত হয়েছে। আর মাত্র এক সপ্তাহ পরেই শীতকালীন অলিম্পিক গেমসে যোগ দিতে দক্ষিণ কোরিয়ায় পৌঁছাবে বিভিন্ন দেশের অ্যাথলেট এবং পর্যটকরা। এর মধ্যেই এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল।
নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই হাসপাতালের বয়স্ক রোগী, তারা কারো সহায়তা ছাড়া হাঁটাচলাও করতে পারেন না। অগ্নিকাণ্ডের পর সেখানকার রোগীদের অ্যাম্বুলেন্সে করে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে।
শুক্রবার সকালে অগ্নিকাণ্ডের পর দুপুর পর্যন্ত হতাহতের সংখ্যা বাড়তে শুরু করে। দুই নার্স জানিয়েছে, হঠাৎ করেই তারা জরুরি বিভাগে আগুন ছড়িয়ে পড়তে দেখেছেন।
দমকল বাহিনীর প্রধান চৌই ম্যান ওউ জানিয়েছেন, সেজুং হাসপাতালের প্রথম তলার জরুরি বিভাগে প্রথম আগুন লাগে। এরপর আস্তে আস্তে তা ছড়িয়ে পড়ে। তিনি আরও জানান, হাসপাতালের ভেতর থেকে সব রোগীকেই সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তারা ইনটেনসিভ কেয়ার থেকে ১৫ জন অসুস্থ ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছেন।
ম্যান ওউ জানিয়েছেন, অনেক হতাহতই হাসপাতালের প্রথম এবং দ্বিতীয়তলার। এছাড়া বেশ কয়েকজনকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তরের সময় তাদের মৃত্যু হয়েছে।
এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর জরুরি বৈঠক ডেকেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা ইন। পুলিশ জানিয়েছে অগ্নিকাণ্ডের সময় সেজং হাসপাতালের ভেতরে প্রায় ২শ জন মানুষ ছিলেন।