উখিয়ায় এনজিও’র কারণে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাধাগ্রস্থ হচ্ছে : বিক্ষোভ সভায় বক্তারা

K-H-Manik-Ukhiya-Pic-23-01-2018-3.jpg

কায়সার হামিদ মানিক,উখিয়া : রোহিঙ্গা ইস্যুকে সামনে রেখে নাম না জানা অসংখ্য এনজিও মানবিক সেবার নামে বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করলেও মূলত তাদের উদ্দেশ্য সম্বন্ধে খোদ প্রশাসনে ও জানা নেই। এসব এনজিওরা বিদেশী অর্থ প্রকটস্থ করার কু-মানসে প্রায় ৫ হাজার রোহিঙ্গাকে ক্যাম্পে বিভিন্ন পদের চাকুরী দিয়েছে। যা সরকারি ও আর্ন্তজাতিক শরনার্থী বিষয়ক নীতিমালা বর্হিভূত। নেতৃবৃন্দরা দাবী করছেন কতিপয় এনজিও’র কারসাজির কারনে প্রত্যাবাসন বিলম্বিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় উখিয়া একেরাম মার্কেট চত্বরে এলাকার প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধ সুলতান আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত উখিয়া প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির কর্তৃক আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাহামুদুল হক চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে প্রত্যাবাসন চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। এ চুক্তির ধারাবাহিকতায় মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের আপাতত আশ্রয় দেওয়ার জন্য ট্রানজিট ক্যাম্প স্থাপন করে চলেছে। এছাড়াও ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গাদের পূর্নবাসনের জন্য ও তারা উদ্যোগ গ্রহন করেছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম সুত্রে জানা গেছে। এমতাবস্থায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নির্ধারিত সময়ে না হওয়া বিষয় নিয়ে উখিয়া-টেকনাফে সচেতন মহলের পক্ষে প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দরা কতিপয় এনজিওদের দোষারোপ করছেন। প্রধান বক্তব্যে সংগ্রাম কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনের নির্দেশে এনজিও ব্যুরো ১২টি এনজিও’র কার্যক্রম স্থগিত করলেও ওইসব এনজিওরা গোপনে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বিরোধী তৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে। তিনি বলেন, এসব রোহিঙ্গারা আগামীতে বিক্ষোভ সহ নানা ধরনের দাবী-দাওয়া নিয়ে সভা-সমাবেশ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। যার ফলে স্থানীয় জনসাধারণ ও রোহিঙ্গাদের দিন দিন দুরত্ব বাড়ছে। এর ফলে যে কোন সময়ে বড় ধরনের সংঘাত এড়িয়ে যেতে যতদ্রæত সম্ভব রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন সহ অভিযুক্ত এনজিওদের ক্যাম্প ত্যাগ এবং যে সমস্ত এনজিও মানবিক সেবার নামে মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের না ফিরতে উৎসাহ যোগান দিচ্ছে ওই সব এনজিওদের চিহ্নিত করে দেশ থেকে বিতাড়িত করার দাবী জানান। অন্যথায় রোহিঙ্গা সংগ্রাম পরিষদ এলাকার জনগণের বৃহত্তর স্বার্থে ওই সব এনজিওর বিরুদ্ধে রাস্তায় নামতে বাধ্য হবে। সভায় বক্তব্য রাখেন সংগ্রাম কমিটির সহ-সভাপতি সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম, যুগ্ন সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান মাবু, কাশেদ নুর, জসিম উদ্দিন চৌধুরী। এর আগে পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা জাফর আলম। সভা সঞ্চালনা করেন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির যুগ্ন সম্পাদক সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার।