হ্নীলা চৌধুরী পাড়ায় মাদক সেবনে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত-৫

99.jpg

সাদ্দাম হোসাইন : হ্নীলা চৌধুরী পাড়ায় দেশী-বিদেশী মাদক সেবনের রমরমা বাণিজ্যে পরিবেশ ভারী হলেও এসব দমনের কেউ না থাকায় মাদকসেবী ও বখাটেদের উৎপাতে স্থানীয় বাসিন্দারা পর্যন্ত অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। মাদক সেবনের বিষয়কে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ৫জন আহত এবং মোটর সাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।
জানা যায়, ২০ জানুয়ারী সন্ধ্যা রাত সোয়া ৭টারদিকে উপজেলার হ্নীলা চৌধুরী পাড়া মংক্য ছিং রাখাইনের বাড়িতে বসে টেকনাফের ৫/৬ জনের একদল যুবক মদ সেবন করছিল। মাদকসেবী স্থানীয় আরো একদল যুবক মাদক সেবনের জন্য ঢুকতে চাইলে দরজা বন্ধ পাওয়া যায়। দরজায় ঝাঁকি দিলে ভেতরে মদপানরত টেকনাফের জনৈক যুবক দরজা খুলে গালি-গালাজ করলে দু’গ্রপের মধ্যে সংঘর্ষ ও মারামারি শুরু হয়। এতে স্থানীয় ন, আ, ছৈ আদ্যাক্ষরের ৩যুবকসহ ৫জন চুরিকাঘাত ও রক্ষাক্ত হয়। এসময় নিরুপায় হয়ে টেকনাফের যুবকেরা পালিয়ে গেলে স্থানীয়রা ক্ষুদ্ধ হয়ে ফেলে যাওয়া মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। পরে রক্তাক্তদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হ্নীলা বাসষ্টেশনের ক্লিনিকে আনা হয়।
উল্লেখ্য,এই রাখাইন পল্লীর বেশ কয়েকটি বাড়িতে দেশী-বিদেশী মাদক বিক্রি ও সেবনের আসরের অশ্লীল পরিবেশে পাশ্ববর্তী অপর রাখাইন বাড়ির লোকজন চরম ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে বলে জানান। এই ব্যাপারে চৌধুরী পাড়ার সমাজ সর্দার মং টিং অং এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন,এসব মাদক বিক্রি এবং সেবনের ব্যাপারে নিষেধ করা হলেও কেউ কর্ণপাত করছেনা। কিছুদিন পূর্বে টেকনাফ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা নিষেধ করলেও কেউ মানছেনা। অবিলম্বে এসব দমনে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।