মিয়ানমারের বৌদ্ধ-রোহিঙ্গা মুসলিমরা মিলে মিশে থাকতে চান!

K-H-Manik-Ukhiya-Pic-27-12-2017-3.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : মিয়ানমারের নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনী ও বৌদ্ধ ভিক্ষুকদের কিছু অংশের নির্যাতনের মুখে প্রাণভয়ে রাখাইন প্রদেশ থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর লাখ লাখ মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির সাবেক জেনারেল এবং পার্লামেন্ট সদস্য হ্লা হতেই উইন বললেন ভিন্ন কথা। চ্যানেল নিউজ এশিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে মিয়ানমারের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সাবেক প্রধান হ্লা হতেই উইন বলেন, ‘মিয়ানমারের বৌদ্ধরা রোহিঙ্গা মুসলিমদের ঘৃণা করেনা। ৬০ ভাগ রোহিঙ্গা মুসলিম শান্তিপূর্ণভাবে মিয়ানমারে বসবাস করছে।’
তবে ৬০ ভাগ রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে বসবাসের তথ্য তিনি কোথায় পেলেন এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি দেশটির পার্লামেন্টের এই সদস্য।
বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের দেওয়া তথ্যমতে, রাখাইনের বিভিন্ন গ্রামে সেনাবাহিনীর অভিযানে তিন শতাধিক বিদ্রোহী এবং কয়েক হাজার বেসামরিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। জাতিসংঘ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনকে ‘জাতিগত নিধন’ বলে অ্যাখা দেয়।
তবে এসব অভিযোগ অনেকটা অস্বীকার করে হ্লা হতেই উইন বলেন, ‘মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ভুল হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ প্রমাণিত হলে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’
নিউজ এশিয়াকে দেওয়া সাক্ষাতকারে দেশটিতে চলমান রোহিঙ্গা নারী ধর্ষণ ও বেসামরিক নাগরিক হত্যাকাণ্ডের কথা অস্বীকার করে সাবেক জেনারেল হ্লা হতেই উইন বলেন, ‘আমরা রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিপক্ষে নই। মিয়ানমারে সবাই মিলেমিশে বসবাস করছি। বেশিরভাগ মুসলিম শান্তিতে বসবাস করতে চায়।’