মাতামুহুরী নদীর মেহেরনামা অংশে পাউবো’র তীর সংরক্ষন প্রকল্পের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

Chakaria-Picture-17-01-2018-M.P.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া : চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য হাজি মোহাম্মদ ইলিয়াছের প্রতিশ্রুতির আলোকে বান্দরবান পানি উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে মাতামুহুরী নদীর ভাঙ্গনরোধে মেহেরনামা অংশে পাঁচ কোটি ২৩ লাখ টাকা বরাদ্দে আরসিসি বøক দ্বারা প্রতিরক্ষা বাঁধের (তীর সংরক্ষন প্রকল্পের) নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে প্রকল্প এলাকায় উপস্থিত হয়ে প্রতিরক্ষা বাঁধের নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও কক্সবাজার জেলা জাতীয় পাটির (এরশাদ) সভাপতি হাজি মোহাম্মদ ইলিয়াছ। কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাউবোর শাখা কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন, ঠিকাদার গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া উপজেলা জাতীয় পাটির সম্পাদক জাহাগীর আলম, মোহাম্মদ সাজ্জাদসহ স্থানীয় এলাকাবাসি। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, প্রতিবছর বর্ষাকালে মাতামুহুরী নদীতে পাহাড়ি ঢল নামলে লোকালয়ে হাজারো পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়ে। পাশাপাশি ওইসময় বন্যার তান্ডবে মাতামুহুরী নদীর মেহেরনামা অংশে ব্যাপক ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়। এ অবস্থার কারনে হাজার হাজার পরিবার দীর্ঘদিন ধরে চরম দুর্ভোগের শিকার হয়ে আসছে।
জনপ্রতিনিধিরা জানান, বন্যার তান্ডবে মাতামুহুরী নদীর ভাঙ্গনের ঘটনাটি স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজি মোহাম্মদ ইলিয়াছকে অবহিত করা হলে তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সাথে তিনমাস আগে মেহেরনামা অংশের নদী ভাঙ্গন এলাকাটি পরিদর্শন করেন। পরে পাউবোর উর্ধবতন প্রশাসনের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে সংসদ সদস্য মাতামুহুরী নদীর ভাঙ্গন ঠেকাতে ৫ কোটি ২৩লাখ বরাদ্দে চারশত মিটার আয়তনের একটি টেকসই প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছেন।
পানি উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবানের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলী (চলতি দায়িত্ব) মো.রাকিবুল হাসান বলেন, মাতামুহুরী নদীর ভাঙ্গন ঠেকাতে চলতি অর্থবছর পাউবো’র পক্ষ থেকে একটি প্যাকেজের আওতায় চকরিয়া উপজেলার বাঘগুজারা রাবার ড্যাম এলাকায় তিনশত মিটার ও পেকুয়ার মেহেরনামা অংশে একশত মিটার আয়তনে তীর সংরক্ষন (প্রতিরক্ষা বাঁধ) নির্মাণ কাজের প্রকল্প চুড়ান্ত করা হয়েছে। ৫ কোটি ২৩ লাখ টাকা বরাদ্দে প্রকল্পের কাজ ইতোমধ্যে উদ্বোধন করা হয়েছে। তিনি বলেন, স্বচ্ছতার মাধ্যমে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত করতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশাকরি প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত হলে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীর তীর এলাকার লক্ষাধিক জনগন ভাঙ্গন কবল থেকে নিস্তার পাবে। #