ভারতের দূরপাল্লার আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা

agni-5-20180118190239.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : দূরপাল্লার আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের (আইসিবিএম) সফল পরীক্ষা চালিয়েছে ভারত। বৃহস্পতিবার দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম অগ্নি-৫ ভারতের সবচেয়ে উন্নত আইসিবিএম। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক টুইটে বলছে, সোমবার সকালের দিকে ভারতের পূর্বাঞ্চলের উড়িষ্যা উপকূলের আব্দুল কালাম আজাদ দ্বীপ থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি উৎক্ষেপণ করা হয়। ক্ষেপণাস্ত্রের এ সফল পরীক্ষাকে দেশটির সামরিক শক্তির বড় ধরনের অগ্রগতি বলে দাবি করা হয়েছে।
ইসরায়েল যখন ট্যাংক-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করার বিষয়ে নয়াদিল্লির সঙ্গে স্থগিত আলোচনা আবার শুরুর ঘোষণা দিয়েছে ঠিক তখনই অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল ভারত।
দেশটির ইংরেজি দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, নানা জটিলতা পেরিয়ে অবশেষে ক্ষেপণাস্ত্রটি ভারতীয় স্ট্রাটেজিক ফোর্সেস কমান্ডের হাতে যাচ্ছে। ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টের তথ্য বলছে, ভারতের অস্ত্রাগারে ১২০ থেকে ১৩০ টি পারমাণবিক অস্ত্র আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ভারতীয় দৈনিক এবিপি আনন্দ বলছে, অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি ১৯ মিনিট আকাশে ছিল এবং এ সময়ের মধ্যে ৪ হাজার ৯০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। অগ্নি সিরিজের সবচেয়ে অ্যাডভান্সড এই ক্ষেপণাস্ত্রে রয়েছে বাড়তি নেভিগেশন সিস্টেম।
এর ফলে তা নির্ভূলভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। সর্বাধিক উচ্চতায় পৌঁছানোর পর লক্ষ্যবস্তুর দিকে মধ্যাকর্ষণ শক্তির প্রভাবে আরও বেশি দ্রুতগতিতে পৌঁছাতে পারে অগ্নি-৫।
অগ্নি সিরিজের প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র অগ্নি-৫ এর প্রথম পরীক্ষামূলক সফল উৎক্ষেপন হয়েছিল ২০১২ সালের ১৯ এপ্রিল। পরের বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয়, ২০১৫ সালের ৩১ জানুয়ারি তৃতীয় এবং ২০১৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ পরীক্ষামূলক সফল উৎক্ষেপন চালায় ভারত।