তেজগাঁওয়ে পলিটেকনিক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত : ছাত্রদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ

dhaka-poleytecnec.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : রাজধানীর তেজগাঁওয়ে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।
মঙ্গলবার রাত ৮টার পর দিপিকা মোড় এলাকায় দুই দফায় সংঘর্ষের পর পুলিশ রাবার বুলেট ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহত অবস্থায় দশজনকে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি আব্দুর রশিদ বলছেন, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিক্রিয়ায় তার কয়েকজন সহপাঠী স্থানীয় এক যুবককে মারধর করলে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে।
তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ওই যুবককে মারার পর স্থানীয়রা এক ছাত্রকে মারধর করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রাবাসসহ শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এরমধ্যে স্থানীয় লোকজনও জড়ো হয়। তখন উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বিরোধ নিরসনে উভয়পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে বসা হয়।
“এরমধ্যে স্থানীয়দের একদল ওই ছাত্রী হোস্টেলে গিয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। ওই খবর শুনে দুইশ’র মতো ছাত্র আবার লাঠিসোটা নিয়ে স্থানীয়দের আক্রমণ করতে যায়। এ সময় পুলিশ তাদের বাধা দিলে উভয়পক্ষে সংঘর্ষ হয়। ১০ জনের মতো শিক্ষার্থী এতে আহত হয়।”
সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার জানিয়েছেন।
পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের এক শিক্ষার্থী জানান, তাদের একজন সহপাঠীর মাথায় আঘাত লেগেছে। তাকে শমরিতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।