লালমনিরহাট সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

BSF.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার দৈখাওয়া সীমান্তে শফিকুল ইসলাম (২২) নামের এক বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। গুলি করে হত্যার পর লাশ বিএসএফ সদস্যরা টেনে হেঁচড়ে নিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন গোতামারী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সাবু। নিহত শফিকুল ইসলাম হাতিবান্ধা উপজেলার গোতামারী ইউনিয়নের আমঝোল গ্রামের জয়নাল আবেদীনের পুত্র বলে জানা গেছে।
শনিবার ভোর ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে বিজিবি সূত্র নিশ্চিত করেছে। নিহতের লাশ বিএসএফ নিয়ে গেছে বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছে বিজিবি।
বিজিবি ও এলাকাবাসীবাসী সূত্র জানান, জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার দৈখাওয়া সীমান্তের মেইন পিলার ৯০৫-এর ২ এফ নম্বর সাব পিলার সংলগ্ন সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশি একদল গরু পারাপারকারী রাখাল শনিবার রাতে গরু আনতে যায়। ভোরে ফেরার পথে ভারতীয় কুচবিহার জেলার ১০০-পাগলিবাড়ি বিএসএফ ক্যাম্পের টহল দল তাদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই শফিকুল নিহত হয়। জিরো পয়েন্টে পড়ে থাকা শফিকুলের লাশ বিএসএফ সদস্যরা টেনে হেঁচড়ে নিয়ে যায়।
লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম মোর্শেদ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় বিএসএফকে কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়েছে এবং নিহতের লাশ ফেরৎ চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।
গোতামারি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সাবু জানান, গত ৩ মাসের ব্যবধানে একই সীমান্তে বিএসএফ’র হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুরো সীমান্ত এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে কৃষকরা চাষাবাদ করতেও সাহস পাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।