নাইক্ষ্যংছড়ির এক গৃহবধূকে চট্টগ্রামে গলায় ফাঁস লাগিয়ে খুন : আটক-২

arrest-20171206160530.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী,নাইক্ষ্যংছড়ি : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির চাকঢালার বাসিন্দা মালেকা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধু কে চট্টগ্রামের আমানত শাহ কলৌনির একটি রুমে গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী। ১২ ডিসেম্বর ২টার দিকে চট্টগামের বরিশাল বাজার এলাকার আমানত শাহ কলৌনির ১২নং রুমে এ ঘটা ঘটে। এদিকে স্ত্রীর লাশ নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি পৌছলে খুনের দায়ে নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আশরাফ মিয়া পাড়ার বাসিন্দা ঠান্ডা মিয়ার পুত্র মো: ছৈয়দ (৩০) ছোট বোন ছেনোয়ারা বেগম (২৭) কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বান্দরবান কোর্টে পাটিয়ে দেয়।
মালেকা বেগমের পিতা বশির আহমদ জানায়, ৫ বছর পূর্বে তাদের বিয়ে হয় এবং ৩ বছর পূর্বে চাকুরীর উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম যায়। সেখানে বাসা ভাড়া নিয়ে সুখের সংসার করছিল তারা স্বামী-স্ত্রী। মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে আমার মেয়ে জামাই মোঃ ছৈয়দ মোবাইল ফোনে জানায়, আমার মেয়ে ষ্ট্রোক করে মারা গেছে। পরে মালেকা বেগমের লাশ নিয়ে চলে আসে নাইক্ষ্যংছড়ির চাকঢালাস্থ শাশুড় বাড়ীতে। সন্দেহ হলে পলিথিন মোড়ানো লাশটি খুলেই দেখা যায়, গলায় ফাঁসের দাগ রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ সদস্যরা স্বামী মোঃ ছৈয়দ সহ তার ছোট বোনকেও আটক করে।
নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ মো: আলমগীর জানান,জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ঘাতক স্বামী মো: ছৈয়দ ও বোন ছেনোয়ারা বেগমকে বান্দরবান পাটিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং সুরতহাল শেষে লাশ পরিবারের কাছে দাফনের জন্য হস্থান্তর হয়েছে।