অর্থকষ্টে কাজের খোঁজে অভিনেত্রী

jaya.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : জয়া ভট্টাচার্য। নামটা নেটদুনিয়ায় একটু খুঁজলেই মিলবে একগুচ্ছ সিরিয়ালের নাম। মিলবে একাধিক সিনেমার নাম। যাতে ছোট হলেও বেশ গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রেই ছিলেন ৪৬ বছরের ভারতীয় বাঙালি এই অভিনেত্রী। একসময় স্মৃতি ইরানির সঙ্গে স্ক্রিনস্পেস শেয়ার করেছিলেন ‘কিউকি সাঁস ভি কভি বহু থি’র মতো জনপ্রিয় সিরিয়ালে। খুব একটা বেশি দিনের কাহিনী নয় তা। পায়েলের চরিত্রকে ভোলার মতো তো নয়ই।
কিন্তু সময়ের ফের সুখের স্মৃতিকে বেশিদিন আগলে রাখে না। জয়ার ক্ষেত্রেও তেমনটাই হয়েছে। একসময় হিন্দি টেলিভিশনে চুটিয়ে অভিনয় করা জয়া আজ ভুগছেন অর্থাভাবে। মাথার উপরে ছাদটুকুও বলতে গেলে নেই তার।
এক সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে জয়া জানান, বহুদিন ধরেই হাতে কাজ নেই তার। এদিকে গত ২৬ নভেম্বর থেকে হাসপাতালে ভর্তি তার অসুস্থ মা। চিকিৎসা করাতে অনেক অর্থ ব্যয় হচ্ছে। গোদের উপর বিষফোড়া হয়েছে বাড়ি তৈরির চুক্তি। যাতে কয়েক মাস আগেই সই করে ফেলেছেন। সে কাজও মাঝপথে আটকে। ফলে থাকার জায়গাও নেই। অগত্যা এক রাখি ভাইয়ের বাড়িতে আশ্রিতা হয়ে দিন কাটাচ্ছেন। এমন অবস্থায় কাজ না পেলে কী করবেন, কোথা থেকে টাকা জোগাড় করবেন? প্রশ্নের কোনও উত্তর পাচ্ছেন না জয়া।
শেষবার জয়াকে দেখা গিয়েছিল কালার্স চ্যানেলের ‘থপকি প্যায়ার কি’ সিরিয়ালে। বসুন্ধরার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। জুলাই মাসেই সিরিয়ালটি শেষ হয়ে যায়। তারপর থেকে হাতে আর কোনও কাজ নেই জয়ার। হ্যাঁ, সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতা তাঁর রয়েছে। কিন্তু বিশ্বাস করার মতো কেউ নেই। তবে সারা জীবন একা লড়েছেন। এবারও তেমনটাই করবেন বলে জানিয়েছেন জয়া। হার তিনি কখনই মানবেন না। শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবেন। তবে এর জন্য কাজ প্রয়োজন। আর তা খুবই দরকারি বলেই বেসরকারি সংবাদমাধ্যমকে জানান এই অভিনেত্রী।