ডুলাহাজারা ও খুটাখালীতে আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

C-4.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া : চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ড ও খুটখালী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের উদ্যোগে গতকাল ২৮নভেম্বর বিকালে ও রাতে আলাদা বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।
অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক কৃষি সম্পাদক ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ কামাল হোসেন চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুর রশিদ দুলাল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোক্তার আহমদ চৌধুরী, ছৈয়দ আলম কমিশনার, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাওনেওয়াজ তালুকদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ডা.মীর আহমদ হেলালী, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজি জামাল হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল এহেছান চৌধুরী সাইফুল, যুগ্ম সম্পাদক আবদুল মালেক, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মনছুর আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক রোস্তম গনী মাহমুদ, আওয়ামীলীগ নেতা আমির উদ্দিন বুলবুল, ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা শওকত আলী, সাবেক মেম্বার হাজি আবু ছালাম, ইউপি মেম্বার মোহাম্মদ সোলেমান, সাবেক মেম্বার সাইফুর রহমান, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোহাম্মদ এহেছান, সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
অপরদিকে খুটাখালীতে অনুষ্টিত সভায় স্থানীয়দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক শফিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক বেলাল আজাদ, সহ-সভাপতি বাহাদুর হক, আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল আবেদিন মেম্বার, মাস্টার কবির, ফজলুল আজিম, ভুট্টো, আয়াছ, জামাল উদ্দিন, নুরুল কবির, মেম্বার তারেক, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তৈয়ব প্রমুখ। এছাড়াও অনুষ্ঠিত সভায় ডুলাহাজারা ৮নম্বর ওয়ার্ড ও খুটাখালী ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির গুরুত্বপুর্ণ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের আমলে দেশে অভুতপুর্ব উন্নয়ন তরান্বিত করা হয়েছে। তার সুফল বিগত সময়ে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার পাঁচলাখ মানুষের কাছে পৌঁেছ দেয়া হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে চকরিয়া-পেকুয়া জনপদে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ হয়েছে। যা অতীতের কোন সরকার করতে পারেনি। তিনি বলেন, অতীতে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে উন্নয়নের নামে কোটি কোটি টাকা বরাদ্ধ দেয়া হলেও উন্নয়নের ক্ষেত্রে চকরিয়া-পেকুয়াবাসির সাথে প্রহসন করা হয়েছে। বেশির ভাগ টাকা ঠিকাদার ও বিএনপির নেতাকর্মীরা ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়েছে। সেইসময় হাতেগোনা বিএনপি মার্কা কিছু ঠিকাদার ছাড়া আওয়ামীলীগ ঘরনার এমনকি অন্য কোন ঠিকাদার চকরিয়া-পেকুয়ায় উন্নয়ন কাজ করতে পারেনি।
বর্তমান সরকার যেমন উন্নয়নে বৈষম্য করেনা, তেমনি আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে বিএনপি ঘরনার ঠিকাদারও লটারীতে কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ পাচ্ছে। এই থেকে তাদেরকে শিক্ষা নেয়া উচিত মন্তব্য করে উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেন, আসুন বিরোধীতার হাতিলে বিরোধীতা না করে দেশের কল্যানে, উন্নয়নের প্রয়োজনে একটি উন্নয়ন সমৃদ্ধ স্বনির্ভর বাংলাদেশ বির্নিমানে সকলে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কাজ করি। কারন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা জানে কিভাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। ইতোমধ্যে তাঁর বিচক্ষন নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দরবারে মর্যাদার অনন্য আসনে পৌঁছে গেছে। বিদেশী অর্থ সহায়তা ছাড়াই তিনি আজ বাংলার মানুষকে উপহার দিচ্ছেন মেগাপ্রকল্প পদ্মা সেতুসহ হাজারো উন্নয়ন প্রকল্প।
বর্ধিত সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আগামী একাদশ নির্বাচনে আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পেতে চাইলে তৃনমুলে দলের জন্য কাজ করতে হবে। বাংলাদেশকে উন্নত ও মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে শেখ হাসিনা সরকারের কোন বিকল্প নেই। তাই আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের সকলস্তরের নেতাকর্মীকে ভেদাভেদ ভুলে আগামী নির্বাচনে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে কিভাবে আওয়ামীলীগ তথা নৌকা প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত করা যায় সেইজন্য এখন থেকে প্রস্ততি নিতে হবে। আমাদেরকে হারানোর মানসিকতা থেকে উত্তোরন ঘটাতে হবে।