শীলখালী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পুন:নির্মাণ উদ্ধোধনে কমর উদ্দিন আহমদ-জননেত্রী শেখ হাসিনা দ্বীনি শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে মাদ্রাসা বোর্ড করেছে

4-1.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া:পেকুয়া উপজেলার শীলখালী ইউনিয়নের জারুল বনিয়া এলাকায় শীলখালী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পুর্ন:নির্মাণ কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল ২০ অক্টোবর জুমার নামাজের পর মসজিদ প্রাঙ্গনে উপস্থিত থেকে নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কক্সবাজার জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য এবং কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক লায়ন আলহাজ কমরউদ্দিন আহমদ।
শীলখালী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাফেজ মাহামুদুর রহমানের সভাপতিত্বে মসজিদ পুর্ননির্মাণ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শীলখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কাজীউল ইনসান। উপস্থিত ছিলেন শীলখালী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুল আওয়াল,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল উদ্দিন,শীলখালী ইউপি সদস্য আহমদ ছবি, মসজিদের খতিব মাওলানা বশির আহমদ,আওয়ামীলীগ নেতা বশির মালিক,আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক মেম্বার নুরুল আলম, নিজান, ছাত্রলীগ নেতা নাঈম প্রমুখ। এছাড়া মসজিদ পুর্ননির্মাণ কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সম্মানিত সকল সদস্য, ধর্মপ্রাণ মুসল্লী ও এলাকার সর্বস্থরের জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।
নির্মাণ কাজের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা পরিষদের সদস্য লায়ন আলহাজ কমমউদ্দিন আহমদ বলেছেন, মসজিদ হচ্ছে আল্লাহ পাকের শ্রেষ্ঠ নিয়ামত। মসজিদের উন্নয়নে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। বর্তমান সরকার সারাদেশে আধুনিকমানের প্রায় ৬শতটি মসজিদ নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করেছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে মসজিদ গুলো নির্মাণ ও পুর্ণনির্মাণ করা হচ্ছে। শীলখালী ইউনিয়নের জারুল বনিয়া এলাকার জনগন আগে বিষয়টি নিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনে যোগাযোগ করলে একটি সুফল পেতে। তারপরও আগামীতে এ ধরণের সুযোগ থাকলেও শীলখালী ইউনিয়নের মানুষের জন্য চেষ্ঠা করা হবে। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ^াসী। এ সরকারের আমলে দেশে সকল ধর্মের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। সরকার প্রধান শেখ হাসিনা দ্বীনি শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে। তাঁর সরকার ইতোমধ্যে মাদরাসা শিক্ষাকে গুনগতমানের পরিবর্তন আনতে আলাদা মাদরাসা বোর্ড করেছে। দেশের প্রতিটি মাদরাসা, মসজিদ ও দ্বীনি প্রতিষ্ঠানকে সরকার সব ধরণের সহায়তা দিচ্ছে। লায়ন কমরউদ্দিন বলেন, স্বাধীনতার পর দেশে একটি পক্ষকে আওয়ামীলীগকে জড়িয়ে ধর্মকে ব্যবহার করে জনসাধারণের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে। তাঁরা মিথ্যাচার করে সাময়িক জনমনে বিভ্রান্তির ছড়াতে চেষ্ঠা করলেও ইসলাম ধর্মের প্রতি আওয়ামীলীগ ও সরকার প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে কারনে কতিপয় চক্রের সব চক্রান্ত বন্ধ হয়ে গেছে। আগামীতেও সকলের মাঝে সম্প্রীতি বজায় রেখে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা এগিয়ে নিতে হলে আওয়ামীলীগ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অবিচল থেকে কাজ করতে হবে।